Press "Enter" to skip to content

সন্তানের তীব্র ইচ্ছায় নিজের ভাইপো কে বলি দিয়ে ধরা পড়েছে কাকা

  • কাকা এবং তান্ত্রিক গ্রেপ্তারের পরে অপরাধ স্বীকার করেছে
দীপক নওরঙ্গি

ভাগলপুর: সন্তানের তীব্র ইচ্ছা তাকে মানূষ থেকে শয়তান বানিয়ে তুলেছিলো।

এর ওপর তার মাথায় সব দুর্বুদ্ধি ঢুকিয়ে দিয়েছেলো এক তান্ত্রিক। সেই

তান্ত্রিকের কথায় ভরসা রেখে সে নিজের ভাইপো কে খুন করেছিলো। আসলে

এই খুন হয়েছিলো নরবলি দেবার নাম করে। গ্রেপ্তার তান্ত্রিক বিলাস মণ্ডল ও

কাকা শিবানন্দন পুলিশের কাছে তাদের অপরাধ স্বীকার করেছেন।

পীরপান্তির বিনোবা তোলায় শিবানন্দন দাস তাঁর ভাইপো কানহাইয়া

কুমারকে (12) হত্যা করেছিলেন। কানহাইয়া ছিলেন সিকান্দার দাসের

ছেলে। স্থানীয় কয়েকজন লোক এই ঘটনার কথা জানিয়েছিল যে শিবানন্দন

দাসের নিজের কোনও সন্তান নেই। এক তান্ত্রিক তাকে দীপাবলির রাতে

একটি নরবলি দিতে বলেছিলো। সেই তান্ত্রিকের কখায় শিবনন্দন নিজের

ভাইপো কে বাজি কিনে দেবার অজুহাতে বাড়ী থেকে নিয়ে যায়।

তাঁর গ্রামের কাছে বাঁশ বিট্টিতে তাকে বলি দেওয়া হয়। সোমবার সকালে এই

ঘটনাটি জানানো হয়েছে। সিনিয়র এসপি আশীষ ভারতী বিষয়টি গুরুত্ব

সহকারে নিয়েছেন।এ বিষয়ে তাত্ক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য একটি বিশেষ

দল গঠন করা হয়েছিল। সংবাদ সম্মেলনের সময় সিনিয়র এসপি জানান,

এই ঘটনায় জড়িত ছিলেন পীরপতি পুলিশ ও কাহালগাঁও এসডিপিও।

জড়িত বিলাস মণ্ডল (তান্ত্রিক) এবং চাচা শিবানন্দন রবিদাসকে গ্রেপ্তার

করা হয়েছে। তার সন্তান ছিল না বলে সে দুটি বিয়ে করেছিল। কিন্তু

তারপরেও তিনি সন্তান পাননি। শিবানন্দনেরও মৃগী ছিল, যা তিনি

গ্রামের এক তান্ত্রিক দ্বারা চিকিত্সা করছিলেন।

সন্তানের আকাঙ্ক্ষায় তান্ত্রিকের দ্বারা প্রলুব্ধ হয়েছিলো 

ধীরে ধীরে তিনি তান্ত্রিকের দ্বারা প্রলুব্ধ হতে শুরু করলেন, শিবানন্দনের প্রতি

আস্থা প্রকাশ করলেন যে তিনি যদি কোনও আত্মীয়ের সন্তানের বলি দেন

তবে তিনি বাচ্চা পেয়ে যাবেন এবং মৃগী সহ অন্যান্য রোগও নির্মূল হবে।

বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে কাহালগাঁও এসডিপিও সন্ধ্যায়

সন্ধ্যায় সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযান চালানোর সময় তান্ত্রিক ও কাকাকে

গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ পুরো তথ্য দিয়েছে হেফাজতে গ্রেপ্তার হওয়া তান্ত্রিক

বিলাস মণ্ডল ও শিবানন্দন রবিদাস তাদের অপরাধ স্বীকার করেছেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
More from অপরাধMore posts in অপরাধ »
More from তাজা খবরMore posts in তাজা খবর »
More from বিহারMore posts in বিহার »

One Comment

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!