Press "Enter" to skip to content

ফিল্মি কায়দায় ঝাড়খণ্ডের অস্ত্র মাফিয়া সহ গ্রেপ্তার ২

  • উদ্ধার বিপুল ইমপ্রুভাইসড আগ্নেয়াস্ত্র,কার্তুজ,মাস্কেট তাজা কার্তুজ

বহরমপুর: ফিল্মি কায়দায় পুজোর মুখে বিপুল পরিমানে অত্যাধুনিক ইমপ্রুভাইসড আগ্নেয়াস্ত্র, কার্তুজ,মাস্কেট সহ ঝাড়খণ্ডের অস্ত্র মাফিয়া সমেত ২জন কে গ্রেপ্তার করল মুর্শিদাবাদের সূতি থানার পুলিশ।

জানা যায় থানার চাঁদের মোড় এলাকা থেকে রবু সেখ (৩৬)ও রফিকুল সেখ (২৯) নামের ওই দুই অস্ত্র কারবারের চাঁই গ্রেপ্তার করে

তাদের দফায় দফায় তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার হয়েছে মোট নাননা ধরনের ২০টি আগ্নেয়াস্ত্র

তারমধ্যে ৪টি মাসকেট, ৫টি এম এম পিস্তল, ১১টি পাইপগান ও ৪২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ।

প্রাথমিক জেরায় জানা যায় ধৃত রবু সেখের বাড়ি মুর্শিদাবাদের সুতি থানার ওমরাপুর বোগলাপারা ও রফিকুল সেখের বাড়ি ঝাড়খন্ডের পাকুড় এলাকায়।

সোমবার বহরমপুরে পুলিশ সুপার মুকেশ কুমার সাংবাদিক বৈঠক করে জানান, তাদের কাছে আগে থেকেই খবর ছিল রবু সেখ দীর্ঘদিন ধরে অস্ত্র পাচারের ব্যাবসা করে।

ভীন রাজ্য থেকে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে এসে এই জেলায় পাচার করত।

এই ঘটনায় জানুয়ারী ২০১৯ থেকে সেপ্টেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত মোট ৩৫৩ জন গ্রেপ্তার হয়েছে।

পুলিস রবু সেখকে ধরার জন্য তার কাছ থেকে অস্ত্র কেনে।

তারপর তাকে ধরে সূত্র মারফত জানতে পারি ঝাড়খন্ডের রফিকুল সেখের কথা।

তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে সে আমাদের অস্ত্র বিক্রি করতে আসলে আমরা তাকে গ্রেপ্তার করি”।

ধৃতদের ৭দিনের পুলিসি হেফাজতের আবেদন চেয়ে জঙ্গিপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়।

সন্ধ্যার আদালত সূত্রে পাওয়া শেষ খবরে জানা যায়,বিচারক তাদের ২অক্টবর পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন।

এর আগেও পুলিস ঝারখণ্ড থেকে হাতিয়ার বিক্রেতাদের আসার খবর পেয়েছিলো।

এর আগেও বেশ কিছু এলাকায় হানা দিয়ে আধুনিক অস্ত্র এবং জাল টাকা পাওয়া গিয়েছিলো।

সেই সময় থেকে এলাকার পুলিস এই ধরনের কারোবারের সাথে যূক্ত লোকেদের ওপর নজর রেখে চলেছিলো।

এই বার ঝারখণ্ড থেকে হাতিয়ার বিক্রী করতে আসা বিক্রেতার সম্পর্ক পুলিসের কাছে আগাম খবর এসেছিলো।

সেই খবরের ভিত্তিতে পুলিস একেবারে ফিল্মি কায়দায় এই অস্ত্র পাচারকারী কে হাতে নাতে ধরে ফেলতে পেরেছে।

ফিল্মি কায়দায় এই ঘটনার পরেও পুলিস সতর্ক

এই ঘটনার পরে এলাকার পুলিস আরও সতর্ক রয়েছে।

কেননা বার বার এই ধরনের হাতিয়ার ব্যাবসা বেড়ে যাওয়াকে পুলিস ভাল চোখে দেখছে না।

কেননা বাংলাদেশ সীমান্তে এই কাজকর্ম চলাকে সোজা ভাবে নেওয়া যাচ্ছে না।

Spread the love

Be First to Comment

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!