Press "Enter" to skip to content

জমিতে সবজি চাষ করতে গিয়ে মাটি খুঁড়তেই বেড়িয়ে এলো প্রাচীন দেবদেবীর মূর্তি

মালদাঃ জমিতে সবজি চাষ করতে গিয়ে মাটি খুঁড়তেই বেড়িয়ে এলো প্রাচীন বেশ কিছু দেবদেবীর মূর্তি।
শুক্রবার সকালে হবিবপুর থানার শ্রীরামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সিঙ্গাবাদ সংলগ্ন রঞ্জিতপুর গ্রামে
এই ঘটনায় ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে।
বিষ্ণু, গণেশ, বজরংবলী, লক্ষী সহ বিভিন্ন দেবদেবীর মূর্তি উদ্ধার হওয়াতেই ধুম পড়ে গিয়েছে পূজা আর্চার। উদ্ধার হওয়া প্রাচীন মূর্তিগুলি কষ্টিপাথরের বলে দাবি করেছেন গ্রামবাসীরা।
বিষয়টি জানার পর স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গেলে তাদেরকে সেই মূর্তি উদ্ধারে বাধা দেয়
আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকার একাংশ বাসিন্দারা বলে অভিযোগ।
বাধ্য হয়ে ফিরে আসতে হয় পঞ্চায়েত কর্তাদের ।
গ্রামবাসীদের দাবি,  উদ্ধার হওয়া এই মূর্তিগুলো তাদের গ্রামেই থাকবে ।
জেলাশাসক কৌশিক ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন, হবিবপুর ব্লক প্রশাসন ও পুলিশ কর্তাদের
ওই এলাকায় পাঠানো হচ্ছে।
মূর্তিগুলি উদ্ধারের ব্যাপারে গ্রামবাসীদেরকে বোঝানো হবে।
পঞ্চায়েত ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে,  রঞ্জিতপুর গ্রামের বাসিন্দা রবি মারডি এদিন সকালে
তাঁর নিজের জমিতে মাটি খুঁড়ছিলেন টমেটো চাষের জন্য।
জমির এক প্রান্তে গর্ত করেছিলেন বৃষ্টির জল সংরক্ষণের জন্য ।
সেই সময় কোদালের চাপ পড়ে ওই মূর্তিরগুলির ওপর।
সন্দেহ হওয়ায় মাটি খুঁড়তেই একের পর এক বেশ কিছু প্রাচীন দেবদেবীর মূর্তি উদ্ধার হয়।
বিষয়টি  জানাজানি হতেই ওই উদ্ধার হওয়া মূর্তিগুলি দেখতে ভিড় জমান শতাধিক গ্রামবাসী।
মুহুর্তের মধ্যে ফুল, বেলপাতা, ধূপকাঠি জ্বালিয়ে শুরু হয়ে যায় পুজোআর্চা।
জমির মালিক রবি মারডি বলেন, “এদিন সকাল থেকে জমিতে টমেটো সহ বিভিন্ন ধরনের সবজির
চারা গাছ লাগানোর জন্য মাটি কাটছিলাম।
জমিতে বৃষ্টির জল সংরক্ষণ করে রাখার জন্য দুই থেকে তিন ফিট গর্ত করছিলাম।
সেই সময় কোদাল কিছু পাথরের গায়ে লাগে।
সন্দেহ হওয়াতে আরও মাটি খুঁড়তে থাকি। তখন কালো-নীলচে রঙের বিভিন্ন দেবদেবীর মূর্তি বেরিয়ে আসতে থাকে।
এসব দেখে হতবাক হয়ে যাই।
পঞ্চায়েতেও খবর দেওয়া হয়।
ওরা এসে মূর্তিগুলি নিয়ে যেতে চাইছিল ।
গ্রামবাসীরা বাধা দিয়েছে।
বাঁশের ব্যারিকেড করে জায়গাটি আপাতত সংরক্ষিত করে রাখা হয়েছে”।
হবিবপুর থানার আইসি প্রদীপ প্রামাণিক জানিয়েছেন,
“রঞ্জিতপুর গ্রামের এক কৃষকের জমিতে প্রাচীন মূর্তি উদ্ধারের খবর শুনেছি।
মূর্তিগুলি উদ্ধার করে সংরক্ষিত করে রাখার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে”।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
More from কাজMore posts in কাজ »
More from তাজা খবরMore posts in তাজা খবর »
More from পশ্চিমবঙ্গMore posts in পশ্চিমবঙ্গ »

2 Comments

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!