কোকজে হলেন নতূন বিহিপ প্রেসিডেন্ট, বিহিপে এবার তোগড়িয়া যূগের সমাপ্তি

কোকজে
এজেন্সি
নয়াদিল্লী- পূর্ব রাজ্যপাল বিষ্ণু সদাশিব কোকজে এবার বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নতূন অধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়েছেন।
এই নির্বাচনের সাথেই শেষ হয়ে গেছে প্রবীন তোগড়িয়ার যূগ।
তবে ইলেক্শানে নিজের প্রার্থী হেরে য়াওয়ার জন্য তোগড়িয়া দায়ী করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কে।
বিরোধ করতে তিনি আহমেদাবাদে অনশন করার কথাও ঘোষণা করেছেন।
দিল্লী তে য়ে ইলেক্শান হয়, তাতে ১৯২ জন ভোট দিয়েছেন।
এর ভেতরে কোকজে পেয়েছেন ১৩১ ভোট।
তোগড়িয়ার প্রার্থী রাঘব রেড্ডীর কপাল জুটেছে মাত্র ৬০ ভোট।
নির্বাচনে একটি ভোট অবৈধ ঘোষিত করা হয়েছে।

আগে থেকেই বোঝা গেছিলো যে কোকজে জিতবেন

কোকজেতবে অনেক আগে থেকেই ধরা হয়েছিলো য়ে শুধুমাত্র নরেন্দ্র মোদির আলোচনা করে তোগড়িয়া বিশেষ কোন সুবিধা করে উঠতে পারছেন না।
এমনকি আরএসএস ও তার ওপরে খূব একটা খূশি ছিলো না। তাই নির্বাচন হবার আগে থেকেই এটা আন্দাজ করে গেছিলো যে কেন্দ্র সরকারের কোপভাজন হয়ে এই সংগঠন চলবে না।
সংগঠনের অন্য লোকেরাও তোগড়িয়ার কাজ কর্মে খুশি ছিলেন না।
বিহিপের জ্বায়েন্ট সেক্রেটারি সুরেন্দ্র জৈন জানিয়েছেন য়ে ৫২ বছর পরে এই প্রথম বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ইলেক্শান হয়েছে।
আগের ওনেক অফিস বিয়াররা পদ ছা়ড়তে চাইছিলেন না।
অন্য দিকে বার বার এটা নিয়ে কথা উঠছিলো। এবার নতূন অধ্যক্ষ পদে আসা কোকজের য্যোগতা নিয়ে কেউ কোন কথা বলতে পারবে না।
বিষ্ণু সদাশিব কোকজে এর আগে মধ্যপ্রদেশ হাইকোর্টের জজ ছিলেন এবং হিমাচল প্রদেশের গভর্নার ছিলেন। তিনি উকিল হিসেবে কাজ শুরূ করায় সময় থেকেই বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সাথে যুক্ত।
আসলে এই ইলেক্শানের আগেই স্পষ্ট বোঝা গেছিলো য়ে জল কোনদিকে গড়াচ্ছে।
শুরু থেকেই তোগড়িয়া বলে আসছিলেন য়ে নকলী ভোটার দিয়ে ইলেক্শান জেতার চেষ্টা চলছে।
তখনই আন্দাজ করা হয়েছিলো য়ে সংগঠনের ওপরে তার কব্জা নষ্ট হয়ে গেছে এবং নতূন লোকেরা তার ঝামেলা করার অভ্যেস কে ভালো চোখে দেখেনি।
Please follow and like us:
Loading...