My title page contents Press "Enter" to skip to content

এখন থেকে আদিবাসীদের তৈরি জিনিস বিশ্বের বাজারে পৌঁছাবে আমেজনের মাধ্যমে




নয়া দিল্লীঃ এখন থেকে আদিবাসীদের তৈরি জিনিস আমেজনের মাধ্যমে বিশ্বের বাজারে পৌঁছাবে।

জনজাতীয় মামলার কেন্দ্রীয় মন্ত্রালয় আদিবাসী সমুদায়ের রোজগার বাড়ানো

এবং যুবকদের রোজগার পাইয়ে দেবার জন্য অনলাইন বাজারে পৌঁছে যাবে

এবং তার জন্য বহুজাতিক কোম্পানি আমেজনের সাথে চুক্তি করা হয়েছে।

এর ফলে আদিবাসীদের ঘরে তৈরি জিনিসপত্র বৈশ্বিক স্তরে নিয়ে আসা যাবে।

এই চুক্তি অনুযায়ী, জনজাতিয় সহকারী বিপণন উন্নয়ন মহাসংঘ (ট্রাইফেড) এর মাধ্যমে

আদিবাসী এলাকাগুলিতে যে সকল জিনিস পত্র পাওয়া যায়

কিংবা চরখায় তৈরী সব ধরণের উৎপাদন আমেজনের মাধ্যমে সব জায়গায় পাওয়া যাবে।

ট্রাইফেড এর সভাপতি প্রবীর কৃষ্ণ বলেন যে ট্রাইফয়েড এর উদ্দেশ্য

আদিবাসীদের তৈরি জিনিসপত্র ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়া,

যাতে আদিবাসী সমাজকে রাষ্ট্রের মুল ধারার সাথে জোড়া সম্ভব হয়।

আমেজনের এই অনলাইন প্লাটফর্মে আদিবাসীদের তৈরি জিনিসপত্র পাওয়া গেলে

এই সকল জিনিসপত্র যারা তৈরি করেন সেইসব কারিগরদের আন্তর্জাতিক বাজার পাওয়া সম্ভব হবে।

বর্তমানে আদিবাসীদের স্থানীয় বাজার ছাড়াও সময় সময় যে ব্যবসায়িক মেলা হয়,

তাতেও তারা নিজেদের জিনিস প্রদর্শিত করার সুযোগ পায়।

কিন্তু এছাড়াও আন্তর্জাতিক অনলাইন বাজার পেলে এই সমাজের আর্থিক সমৃদ্ধি হবে।

এর জন্য ট্রাইব্স ইন্ডিয়ার অন্তর্গত গো ট্রাইবাল অভিযান শুরু করা হয়েছে।

এর মাধ্যমে আদিবাসী সমাজের তৈরি জিনিসপত্র রপ্তানি করতে সুবিধে হবে।

কেন্দ্রীয় জনজাতীয় রাজ্য মন্ত্রী রেনুকা সিংহ সরোতা ‘গো ট্রাইবাল’ এর উদ্ঘাটন করে বলেন যে

আদিবাসী সমাজকে আর্থিক দৃষ্টিতে উন্নত বানাবার জন্য

এখন থেকে আদিবাসীদের তৈরী জিনিসের বাজার তৈরী করতে মোউ

এই সব জিনিসপত্রের   গুণমান এবং তাদের স্ট্যান্ডার্ডের উপর মানুষের বিশ্বাস অর্জন করতে হবে।

আমেজনের সাথে চুক্তি করার সময় ড্রাইভের ট্রাইফেডের সভাপতি আরসি মিনা এবং

জনজাতীয় মামলার সচিব দীপক খান্ডেকর উপস্থিত ছিলেন।

ট্রাইফেড এবং আমেজনের মধ্যে যে চুক্তি হয়েছে,

সেটি অনুসারে বিশ্বের প্রায় ১৯০ টি দেশে আদিবাসীদের তৈরি জিনিস পাওয়া যাবে এবং

গোটা বিশ্বে রপ্তানির বাজার তৈরি করতে সহায়ক হবে।

এই চুক্তির সময় মহাত্মা গান্ধীর ১৫০ তম জন্ম জয়ন্তী অনুষ্ঠানের অন্তর্গত

ট্রাইফেড খাদি এবং জ্যাকেট বাজারে নিয়ে এলো।

এর জন্য ‘আই এম’ খাদি ফাউন্ডেশনের সাথে একটি চুক্তি করা হয়েছে।

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আদিবাসী সমাজের দ্বারা উৎপাদিত মরুয়া, জোয়ার, বাজরা, লাল চাল,

মধু, লাক্ষা দিয়ে তৈরী জিনিস, মশলা, কফি, চা, হস্তনির্মিত সাবান ইত্যাদি উৎপাদগুলির প্রদর্শন করা হচ্ছে।

শুরু শুরুতে আমেজনের গ্লোবাল পোর্টাল এ ট্রাইবস অফ ইন্ডিয়া হেরিটেজ কালেকশন,

ও ট্রাইবস অফ ইন্ডিয়া ন্যাশনাল কালেকশন নামে জিনিসপত্র পাওয়া যাবে।

এর অন্তর্গত চরখায় বোনা কাপড়, যেমন, ইকট্স, সিল্ক এবং পশমিনা ও অলংকার,

যেমন ডোকরা ও বঞ্জারা এবং উপহার ও বাসনপত্র শামিল আছে।

এছাড়াও তেলেঙ্গানার কফি, উত্তরাখণ্ডের সাবান, কর্নাটকের মসলা ইত্যাদি এই ওয়েবসাইটে রয়েছে।

 



Spread the love
More from কাজMore posts in কাজ »
More from জীবনধারাMore posts in জীবনধারা »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.