My title page contents Press "Enter" to skip to content

রহস্যজনকভাবে এলাকায় পরপর ১০ টি গোরুর মৃত্যুর ঘটনায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে




মালদাঃ রহস্যজনকভাবে এলাকায় পরপর ১০ টি গোরুর মৃত্যুর ঘটনায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে বাসিন্দাদের মধ্যে।

অসুস্থ রয়েছে আরও পাঁচটি গোরু।

শনিবার ইংরেজবাজার থানার কুলদীপমিশ্র কলোনি এলাকায় কাকভোর থেকেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাগানগুলির মধ্যে

পরপর গবাদি ওই পশুগুলি অচৈতন অবস্থায় পড়ে থাকে দেখেন এলাকার বাসিন্দারা।

আর তা দেখে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে হুলুস্থুল পড়ে যায়।

অসুস্থ গবাদি পশু গুলিকে বাঁচাতে স্থানীয় পশু চিকিৎসকদের ডেকে নিয়ে আসেন বাসিন্দারা।

কিন্তু চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়ার পরেও বাঁচানো যায় নি ওই গবাদি পশু গুলিকে বলে সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দাদের বক্তব্য।

এনিয়ে ওই এলাকার মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার শুরু হয় এবং আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য, এদিন ভোরে দেখা যায় এলাকার আম বাগানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ন’টি গোরু এবং একটি ষাঁড় অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

তাদের মুখ দিয়ে গ্যাজলা বেরিয়েছিল। এই দেখ এই এলাকায় শোরগোল পড়ে যায়।

গবাদি পশুর মালিকেরা পশু চিকিৎসকদের খবর দেন।

এরপরই পশু চিকিৎসকেরা এসে গবাদি পশুগুলির সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

কিন্তু ১০টি গবাদি পশুকে বাঁচানো যায় নি।

বাকি পাঁচটি গবাদিপশুকে চিকিৎসার মাধ্যমে খানিকটা সুস্থ করা হয়েছে।

বৈদ্যনাথ দাস নামে এক গবাদি পশুর মালিকের বক্তব্য, তার তিনটি গোরু আচমকাই মারা গিয়েছে।

কি কারনে এমন ঘটনা ঘটলো কিছুই বুঝে উঠতে পারছি না।

রহস্যজনকভাবে মৃত্যুর পিছলে ফেলে দেওয়া খাবার হতে পারে




এদিকে ওই এলাকার একাংশ বাসিন্দাদের বক্তব্য, দুদিন আগে মিশ্র কলোনি এলাকায় একটি কীর্তনের আসর হয়েছিল।

সেখানে রান্না করা প্রচুর খাবার ফেলে দেওয়া হয়েছিল।

শুক্রবার সেই খাবার খেয়েছিল গবাদি পশুগুলি।

আর সেই ঘটনার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই ১০ টি গবাদি পশুর মৃত্যু হয়।

এলাকার বাসিন্দাদের ধারণা, খাবারের বিষক্রিয়া থেকেই হয়তো গোরুগুলির মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে।

এদিকে কর্তব্যরত এক পশু চিকিৎসক জানিয়েছেন, ওই গবাদি পশু গুলিকে চিকিৎসা চালানোর পাশাপাশি স্যালাইন দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু বাঁচানো সম্ভব হয় নি।

ময়নাতদন্ত করলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত বলা যাবে।

এদিকে ওই এলাকার কাউন্সিলর শুভদীপ সান্যাল জানিয়েছেন, এলাকায় রহস্যজনকভাবে আচমকা গোরুর মৃত্যু সম্পর্কে

আমাকে কিছু জানায় নি। তবে আমি বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি।

কি কারনে এমন ঘটনা ঘটল সেটিও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।




Spread the love

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Mission News Theme by Compete Themes.