Press "Enter" to skip to content

মালদা থেকে শুরু জেলায় দুঃস্থ আদিবাসীদের গণবিবাহ করবে রাজ্য সরকার

  • উত্তরবঙ্গের চা বাগান এলাকায় হবে এই গণবিবাহ

  • আদিবাসির জমি জবর দখল করতে দেব না কাউকে

  • শুরুতেই আদিবাসী ভাষায় সম্বোধন করেন মমতা

মালদাঃ মালদা থেকে শুরু করা হচ্ছে। এবারে জেলায় জেলায় দুঃস্থ আদিবাসীদের গণবিবাহ

অনুষ্ঠান করবে রাজ্য সরকার । পাশাপাশি ১ এপ্রিল থেকে চালু করা হচ্ছে বয়স্ক আদিবাসীদের

জন্য প্রতি মাসে এক হাজার টাকা করে ভাতা দেওয়ার ব্যবস্থা । বৃহস্পতিবার দুপুরে মালদার

গাজোলে আদিবাসীদের গণবিবাহ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে একথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

তিনি বলেন, মালদা থেকে দুঃস্থ আদিবাসী যুবক-যুবতীদের গণবিবাহের অনুষ্ঠান চালু করা

হলো। আগামীতে জেলায় জেলায় এই গণবিবাহের অনুষ্ঠান করা হবে। এরপর চা বাগান

অধ্যুষিত এলাকায় দুঃস্থ আদিবাসীদের গণবিবাহের অনুষ্ঠান করব। আগামী মাসে উত্তরবঙ্গের

চা বাগান এলাকায় এরকম একটি অনুষ্ঠান করা হবে। এদিন ধামসা , মাদলের সুরে

আদিবাসীদের সঙ্গে নিত্য অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। আদিবাসীদের সঙ্গে তালে তাল মিলিয়ে

নাচ করেন মুখ্যমন্ত্রী।

তার আগে ভালো থাকা এবং সুস্থ থাকার কামনা করি আদিবাসীদের ভাষায় মুখ্যমন্ত্রী কয়েক

লাইন সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন। যা শুনে রীতিমতো অভিভূত হয়ে পড়েন এদিনের অনুষ্ঠানে আসা

হাজার হাজার আদিবাসীরা। এদিনের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মালদার

আদিবাসী সেলের নেত্রী চুনিয়া মুর্মু, জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ সরলা মুর্মু। ছিলেন রাজ্য ও

জেলা প্রশাসনের পদস্থ কর্তারা

বৃহস্পতিবার গাজোল ব্লকের কলেজ মাঠ এলাকায় অনুষ্ঠিত হয় আদিবাসী প্রথা মেনে

গণবিবাহের অনুষ্ঠান । এদিন ৩০০ যুবক-যুবতী আদিবাসীরা এই গনবিবাহ অনুষ্ঠানে যোগদান

করেন। দুপুর বারোটায় হেলিকপ্টার করে গাজোল কলেজ মাঠে আসেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা

ব্যানার্জি। বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে আধঘণ্টার মধ্যে সাত থেকে আট মিনিট বক্তব্য রাখেন

মুখ্যমন্ত্রী। এরপর মঞ্চ থেকে নেমে আদিবাসীদের গণবিবাহের নানান কর্মসূচিতে সামিল হন

মুখ্যমন্ত্রী। এমনকি একসময় মুখ্যমন্ত্রীকে দেখা যায় আদিবাসীদের সঙ্গে ধামসা, মাদলের সুরে

নিত্য করতে।

মালদা থেকে শুরু নাচে ভাগ নেন মমতা ব্যানার্জী

এদিন রূপশ্রী প্রকল্পের মাধ্যমে গণবিবাহ অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া আদিবাসী যুবক-যুবতীদের

হাতে উপহার তুলে দেওয়া হয় । পাশাপাশি ২৫ হাজার টাকা করে সরকারি আর্থিক অনুদান তুলে

দেওয়া হয় ৩০০ জোড়া আদিবাসীদের হাতে।

এদিন মঞ্চে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেন, মালদা থেকে শুরু হলো দুঃস্থ

আদিবাসীদের গণবিবাহের কর্মসূচি। প্রশাসন এবং রাজ্য সরকারের উদ্যোগ এই গণবিবাহের

কর্মসূচি আগামীতে জেলায় জেলায় করা হবে। পাশাপাশি আদিবাসী যারা রয়েছেন, যাদের ৬০

বছর বয়স পেরিয়ে গিয়েছে। সেই সব মানুষদের জন্য ১ এপ্রিল থেকে প্রতি মাসে ১০০০ টাকা

করে ভাতা চালু করা হচ্ছে। যেকোনো দুঃস্থ আদিবাসীরা ৬০ বছর হলেই এই প্রকল্পের আবেদন

করতে পারবেন।

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, আদিবাসীদের বর্গাদারী থেকে কোন ভাবেই বঞ্চিত করা যাবে না।

তাদের জমি কেউ কেড়ে নিতে পারবে না। উত্তরবঙ্গের চা বাগান এলাকাগুলিতে বহু দুঃস্থ

আদিবাসীরা রয়েছেন। সেই সব এলাকাতেই এই ধরনের অনুষ্ঠান করা হবে। মুখ্যমন্ত্রীর কয়েক

মিনিটের বক্তব্যে আদিবাসী মানুষদের মন জুগিয়েছে।

এদিন জেলা পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুঃস্থ আদিবাসীদের গণবিবাহ অনুষ্ঠানে দুপুরের

আহারের ব্যবস্থা করা হয়। বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হওয়ার পর ভাত, সবজি ,ডাল ,মুরগির

মাংস , মিষ্টি খাওয়ানো হয় প্রায় ৮ হাজার মানুষকে। সমস্ত অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হওয়ার

পর এদিন দুপুরে মুখ্যমন্ত্রী হেলিকপ্টার করে কলকাতার উদ্দেশ্যে মালদা থেকে রওনা দেন


 

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
More from তাজা খবরMore posts in তাজা খবর »
More from পশ্চিমবঙ্গMore posts in পশ্চিমবঙ্গ »
More from রাজ কার্যMore posts in রাজ কার্য »

Be First to Comment

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!