Press "Enter" to skip to content

ঢাকার গুলশান জঙ্গি হামলার রায়ে ৭ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড

প্রতিনিধি

ঢাকাঃ ঢাকার গুলশান জঙ্গি হামলার পরে প্রায় সাড়ে তিন বছর বাদে

নিজের অর্ডার দিয়েছেন আদালত। ২০১৬ সালে ১জুলাই ঢাকার অভিজাত

এলাকা গুলশানে সংঘটিত স্মরণকালের জঙ্গি হামলার রায়ে ৭ জনকে

মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন আদালত

মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান নামে এক আসামী খালাস পেয়েছে।

এর আগে বুধবার কড়া নিরাপত্তায় কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আদালতে

হাজির করা হয়। এসময় প্রিজনভ্যান থেকে নেমে আঙুল উঁচিয়ে হাসিমুখে

আদালতের ভেতর প্রবেশ করে আট আসামি। এরমধ্যে একজনের পায়ে

সমস্যা থাকায় সে ক্রাচে ভর করে আদালতে প্রবেশ করে।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হচ্ছে, রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগ্যান,

হাতকাটা সোহেল মাহফুজ, হাদিসুর রহমান সাগর, রাশেদ ইসলাম ওরফে

আবু জাররা ওরফে র্যা শ, শরিফুল ইসলাম ওরফে খালেদ ও মামুনুর রশীদ

ওরফে রিপন। রায় ঘোষণা শেষে তাদের সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে

পাঠানো হয়েছে। জঙ্গি হামলায় নিহত ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের

সহকারী কমিশনার (এসি) মোহাম্মদ রবিউল করিমের মা করিমন নেছা

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি জানান, এই দিনটির জন্য সাড়ে তিন বছর

অপেক্ষা করেছি। অভিযুক্তদের ফাঁসির রায় হওয়ায় আমি সন্তষ্ট। দ্রুত এই

রায় কার্যকরের দাবি জানান তিনি।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল্লাহ আবু রায় ঘোষণার পর আদালত প্রাঙ্গণে

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সন্ত্রাসবিরোধী আইনে জঙ্গিদের বিচার করা

হয়েছে। তাদের অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত। রায়ে সন্তোষ্ট

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

আর আসামিপক্ষের আইনজীবী দেলয়ার হোসেন জানিয়েছেন, উচ্চ

আদালতে আবেদন করা হবে। ২০১৬ সালরে ১লা জুলাই রাতে গুলশানের

হোলি আর্টিজানে হামলা চালিয়ে বিদেশি নাগরিক সহ ২০ জনকে

নৃশংসভাবে হত্যা করে জঙ্গিরা। তাদের হামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাও প্রাণ

হারান।

ঢাকার গুলশান মামলার রায়ে  কড়া নিরাপত্তা

ঢাকার গুলশানে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার রায়কে কেন্দ্র করে আদালত পাড়ায়

নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছিলো। মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত

কমিশনার মীর রেজাউল আলম ও কৃষ্ণ পদ রায় আদালত পাড়া পরিদর্শন

করেন। এসময় আদালতের বিশেষ নিরাপত্তা নিয়ে লালবাগ ডিভিশন ও

আদালতের ডিসি প্রসিকিউশনকে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেন। ঢাকার

আদালতের ডিসি প্রসিকিউশন জাফর হোসেন জানিয়ছেন, আদালত

পাড়ায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। কোন প্রকার হামলার আশঙ্কা

নেই।


 

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
More from অপরাধMore posts in অপরাধ »
More from আদালতMore posts in আদালত »
More from বাংলাদেশMore posts in বাংলাদেশ »
More from সন্ত্রাসবাদMore posts in সন্ত্রাসবাদ »

One Comment

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!