Press "Enter" to skip to content

পাখিদের অভয়ারণ্য হয়ে উঠেছে এখন রাঁচি লেক

  • পুকুরের মধ্য এলাকায় প্রচুর পাখির বাসা

  • শান্ত পরিবেশে হাজার হাজারে বহু জল পাখি

  • জলকুম্ভির ওপরে বসে বক পাখি মাছ শিকার করছে

প্রতিবেদক

রাঁচি: রাঁচি লেক এখন এখানের পাখিদের জন্য সেরা অঞ্চল হিসাবে রয়েছে। জলে বাসকারী পাখি

ছাড়াও এখানকার পাখিরা জল ও খাবারের সন্ধানে ঘুরে বেড়াচ্ছে। পুকুরের পরিবেশ ভাল থাকার

জন্য তারা এখানের কাছে চলে আসছে। ফলস্বরূপ, এই পুকুরের মাঝখানে নির্মিত দুটি দ্বীপ পাখি এবং

অন্যান্য পাখির ভিড়ে গুলজার। তাছাড়াও হাজার হাজার বিভিন্ন প্রজাতির পাখি এখনও পুকুরের যে

অঞ্চলে জল রয়েছে সেখানে দিন ভর সাঁতরে বেড়াচ্ছে। লকডাউনের নীরবতার মাঝে এই সমস্ত

পাখির দিন ভালই কেটে যাচ্ছে কারণ এই জায়গায় তাদের কোনও সমস্যা নেই। লোকজন পুকুরের

কাছাকাছি আসছে না। তাছাড়া পুকুরের চারপাশের সমস্ত দোকান বন্দ। কোন ভীড় না থাকায়

পাখীদের কোন অসুবিধা হচ্ছে না এবং তারা বেশ ভাল আছে।

আসার কারণে তাদের বার বার উড়তে হবে না। মজাদার পরিস্থিতি হ’ল দ্রুত প্রসারিত হায়াসিন্থের

প্রান্তরের মাঝে বাগগলগুলির মাছ শিকার। এখন কয়েকশো হারুন স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তির নীচে

এবং অন্য দুটি দ্বীপে অবিচ্ছিন্নভাবে বসে থাকতে দেখা যায়। পুকুরের মাঝখানে হায়াথিনথের উপরে,

তারা জলের দিকে ঘুরে মাছ শিকার করতেও দেখা যায়।

পাখিদের এলাকাটি শহরে ঠিক মাঝখানে

শহরের মাঝখানে অবস্থিত এই পুকুরের উত্তর-পশ্চিমের কয়েকটি অঞ্চল এখনও জলবায়ু দ্বারা

প্রভাবিত হয়নি। এই কারণেই সেখানে জলের কিছু অংশ উন্মুক্ত। হাজার হাজার পাখি অবিচ্ছিন্নভাবে

এই জলে ডুবে থাকতে দেখা যায়। এর মধ্যে পতাকাটির পতাকাগুলি এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায়

উড়ে যায়। তবে তারা সারা দিন জলে বা তার আশপাশে আটকে থাকে। সাধারণ দিনগুলিতে

অবিরাম শব্দ বা যানবাহন পরিষ্কারের কারণে লোকেরাও ধারাবাহিকভাবে জলে বেঁচে থাকার

সুযোগ পান না। এখন লকডাউনের কারণে তারা এখানে খুব আরামদায়ক উপায়ে দিন কাটাতে সময়

পাচ্ছে।


 

Spread the love

Be First to Comment

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!