উত্তর পূর্বের জন্য প্রধানমন্ত্রীর অনেক উপহার

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন সারা বিশ্বে ভারতের মান বেড়েছে
Spread the love

ভুপেন গোস্বামী

গুয়াহাটী, ইটানগর – প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শনিবার উত্তর পূর্ব এলাকার লোকেদের অনেক উপহার দিলেন।

সেখানে পৌঁছে তিনি কংগ্রেসের ওপর আবার হামলা করলেন।

তিনি স্পষ্ট করে দিলেন যে তিনি নির্বাচনের মুড নিয়েই সেখানে পৌঁছেছেন।

জনসমুদায়কে উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী কংগ্রেসের ৫৫ বছর বনাম নিজের সরকারের ৫৫ মাসের তুলনা করেন।

তিনি বলেন যে এখানে যে সব উন্নয়ন প্রকল্পের তিনি শিলান্যাস করছেন সে সব ছাড়াও

সারা দেশে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকার প্রকল্পের ওপর খুব দ্রুতগতিতে কাজ হচ্ছে।

তিনি বলেন যে প্রকল্পগুলির দ্বারা অরুণাচল প্রদেশের জনতা অনেক বেশী লাভবান হবেন।

এর সাথে রাজ্যের এনার্জী সেক্টর মজবুত হবে।

রাজ্যের লোকেদের স্বাস্থ্য পরিষেবা সুনিশ্চিত হবে, অন্য দিকে স্থানীয় সংস্কৃতি প্রোৎসাহিত হবে।

মোদী কংগ্রেসর ওপর কটাক্ষ করে বলেন যে দেশ স্বাধীন হবার পর একটি মাত্র দল ৫৫ বছর ধরে শাসন করেছে।

তিনি বলেন যে এক দিকে তাদের ৫৫ বছর এবং অন্য দিকে কেন্দ্রে বিজেপির ৫৫ মাসের শাসনকে

রেখে তুলনা করলে দেখা যাবে যে অরুণাচল প্রদেশ এবং পুরো উত্তর পূর্বে এর আগে কি কাজ হয়েছে।

অরুণাচল প্রদেশের বিদ্যুৎ উৎপাদনের অসীম সম্ভাবনা

উল্লেখযোগ্য যে সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের পর ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর লোকসভায় চর্চার সময়

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বৃহস্পতিবার নিজের ৫৫ মাসের সরকার ও কংগ্রেসের ৫৫ বছরের সরকারের তুলনা করে

বলেছিলেন যে তাঁর সরকার অনেক কম সময়ে দেশের উন্নয়নের জন্য অনেক বেশী কাজ করেছে।

তিনি বলেন যে অরুণাচল প্রদেশে জলের ভাল সংস্থান আছে। এর থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের অসীম সম্ভাবনা রয়েছে।

কিন্তু এত কিছু থাকা সত্তেও আশানুরুপ উন্নয়ন হয় নি। এটি দেশের নিরপত্তার সাথে যুক্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকা।

যুদ্ধকৌশলের দিক থেকেও এটি একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। তবুও এখানে জরুরী সুবিধার খামতি রয়েছে।

এখানে না যুবকদের দিকে নজর দেওয়া হয়েছে, না সীমান্ত প্রদেশে থাকা জওয়ানদের দিকে।

তিনি বলেন যে এই সরকারের মূল মন্ত্র, সবার সাথে সবার উন্নয়নকে সম্বল করে তাঁর সরকার গত ৫৫ মাসে

অরুণাচল প্রদেশ সহ সমগ্র উত্তর পূর্ব অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য কখনও টাকা পয়সা কম হতে দেয় নি,

না ইচ্ছাশক্তির অভাব কখনও এর অন্তরায় হয়েছে।

বিগত বছরগুলিতে এই রাজ্যগুলিকে ৪৪ হাজার কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে,

যেটা আগের সরকারের সময়ে দেওয়া টাকার দ্বিগুন।

এ ছাড়াও কেন্দ্র সরকার এখানে হাজার-কোটি টাকার অন্যান্য প্রকল্পের ওপর কাজ করছে।

দেশে প্রথমবার এক সাথে দুটি বিমানবন্দরের কাজ

উন্নয়নের ফসল হিসাবে আজ অরুণাচল প্রদেশে এক সাথে দুটি বিমান বন্দরের উদ্ঘাটন এবং শিলান্যাস হচ্ছে।

সম্ভবতঃ প্রথমবার দেশের কোন রাজ্যে এক দিকে একটি বিমান বন্দরের কাজ শেষ হয়েছে

এবং অন্য দিকে নতুন বিমান বন্দরের কাজ শুরু হচ্ছে।

অরুণাচল প্রদেশের জন্য এটি আরও গুরুত্বপূর্ণ কারণ স্বাধীনতার এত বছর পরেও এখানে একটাও বিমান বন্দর ছিল না,

যেখানে নিয়মিতভাবে বড় যাত্রী বিমান ওঠা নামা করতে পারে।

দেশের অন্যান্য জায়গা থেকে গুয়াহাটী পর্য্যন্ত বিমানে এসে তারপর

সড়ক পথে অরুণাচলের লোকেদের চলাচল করতে হত।

নয়ত বেশী দরকার হলে সেখান থেকে হেলীকপ্টারে এখানে আসা যেত।

মোদী বলেন যে অরুণাচল প্রদেশ খুবই সুন্দর একটি রাজ্য।

এটিকে মাথায় রেখে জোটে ভারতীয় ফিল্ম এবং টেলিভিশন সংস্থান এর একটি স্থায়ী কার্যালয় এখানে তৈরী করা হচ্ছে।

এফটীআইআই তৈরী হয়ে গেলে এক দিকে যেমন পূর্বোত্তর রাজ্যগুলিতে ফিল্মের প্রতি আকর্ষণ থাকা

ছেলেমেয়েদের সুবিধা হবে, অন্য দিকে এখানকার সংস্কৃতির ঝলক দেখা যাবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন যে, আমি বার বার বলে এসেছি যে নতুন ভারতবর্ষ তখনই গড়ে উঠবে,

যখন পূর্ব এবং উত্তর পূর্ব রাজ্যগুলির দ্রুত গতিতে উন্নয়ন হবে।

Author: Bangla R khabar

Loading...