Press "Enter" to skip to content

নিউ মধুকম এলাকায় সিসিটিভি তে রেকর্ড হয়েছে হত্যার ঘটনা

  • সেই রেকর্ডিংয়ের ভিত্তিতে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল

  • অভিযোগ এলাকায় নেশা করে রোজ ঝামেলা

  • মেয়েদের পথ চলাও টিটকারির জন্য বন্ধ

রাঁচি: নিউ মধুকম এলাকায় লুটপাটের সময় এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। মনোজ সোনি নামে এই

ব্যাবসায়ী কাঁকে এলাকার চাঁদনী চৌকে নিজের দোকান বন্ধ করে রাত্রিরে বাড়ি ফিরছিলেন।

রাত দশটার দিকে ঘটনার সময় দুই যুবক তাকে ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে করেছিল. এত কিছুর

পরেও সে তার ব্যাগটি ছাড়েনি।

সিসিটিভির ভিডিওতে সম্পূর্ণ ঘটনাটি  দেখুন

বাড়ি ফেরার সময় তার ব্যাগে কিছু গয়নাও ছিল।তাই আচমকা হামলা হবার পরেই সে তার

সেই ব্যাগ ধরে রাখে। একটি সাদা স্কূটারে আসা দুই যুবকদের সমস্ত ব্যাপার সেখানে লাগানো

একটি সিসিটিভি তে রেকর্ড হয়ে যায়। ৪৫ বছরের এই লোক মাটিতে পড়ে যাবার পরেও নিজের

ব্যাগ ধরে রাখে। ব্যাগ ছিনিয়ে নেবার জন্য পরে তাকে ইট বা পাথর দিয়ে আঘাত করা হয়।

অনুমান করে হচ্ছে যে সেই পাথরের চোটেই ভদ্রলোক মারা গিয়েছেন। গুরুতর আহত ব্যক্তি

সেখান থেকে কিছুটা এগিয়ে গিয়েই মাটিতে পড়ে যান। এই কারণে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

এই ঘটনার পরে, এলাকায় সোনার রৌপ্য ব্যবসায়ীরা তাদের দোকান বন্ধ করে ব্যবস্থা নেওয়ার

দাবি জানান। এদিকে, খবর পাওয়া গেছে যে এই ঘটনার সাথে পুলিশ দুটি যুবককেও গ্রেপ্তার

করেছে।

স্থানীয় লোকদের অভিযোগ যে ইদানিং এই এলাকায় প্রতি দিন এই ধরনের ঝামেলা হচ্ছে। রাস্তা

দিয়ে মেয়েদের চলার সময় কিছু যুবক টিটকারি দেয়। অন্ধকার হলেই এলাকায় নেশা গ্রস্ত

লোকেদের ঝামেলা বাড়ে। সন্ধ্যাবেলায় অপরাধী ও অপরাধীরা মদ ও অন্যান্য নেশা গ্রহণ

করে। দোকানদারদের সাথে এবং এলাকার বাসিন্দাদের রোজ এই ঝামেলা পোয়াতে হয়।

সেখানকার খুচরা দোকানদার সমিতির কুমার টোলি, ইরগু রোড রাঁচি এই ঘটনার তীব্র

বিরোধিতা করেছে। সেই সমিতির সভাপতি নীরজ প্রজাপতি প্রশাসনের কাছে এই অঞ্চলটির

ওপর বিশেষ নজর রাখার দাবি জানিয়েছেন। এলাকার মোড়ের মাথায় প্রতি দিন পুলিসের নজর

থাকলে এই ধরনের ঝামেলা হবে না। কেননা পুলিসের নজর না থাকায় স্থানীয় লোকেদের

প্রতিদিন এই ধরনের কার্যকলাপ সহ্য করতে হচ্ছে।

নিউ মধুকম এলাকার আগে চুনা ভাট্টায় হামলা হয়েছিলো

কিছূ দিন আগে চুন্না ভাট্টা চৌকেও একই রকম ঘটনা ঘটেছে। সেখানকার সমাজকর্মী জগদীশ

ভার্মা তাঁর বাড়িতে বসে ছিলেন। সেই সময় কিছু ক্রিমিনাল যুবক তার ওপর হামলা চালায়।

স্থানীয় লোকেরা হুশিয়ারী দিয়েছে যে কোন পদক্ষেপ না নেওয়া হলে তারা রাস্তায় নামবেন।

ব্যাবস্থা না নেওয়া হলে আবার কোন নির্দোষ মারা যেতে পারে। এদিকে নিউ মধুকাম ক্লাবের

পক্ষে অনিল গুপ্তও এই ঘটনাটি নিয়ে মৃত ব্যাবসায়ির পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে

এবং মানুষকে ধৈর্য ধরার আবেদন জানান। তিনি বলেছিলেন যে এই জাতীয় ঘটনাগুলি কেবল

আশেপাশের মানুষকেই জানাচ্ছে যে এই সময়ে প্রত্যেক কে নিজের আশে পাশের চার দিকে নজর

রাখতে হবে। বিশেষত তাদের চারপাশের যুবকদের নজরদারি করা উচিত।প্রাপ্ত তথ্য মতে,

নিউ লায়ন্স ক্লাবের সভাপতি অনিল গুপ্ত বাড়ির বাইরের সিসিটিভি সম্পূর্ণ রেকর্ড করা

হয়েছিল। এই সিসিটিভি ফুটেজ একই ভিত্তিতে পুলিশ যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। এ সম্পর্কে

কোতোয়ালি ডিএসপি জানালেন যে সোহান কুজুর ও অমিত ভার্মাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।


 

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
More from অপরাধMore posts in অপরাধ »
More from মহিলাMore posts in মহিলা »

Be First to Comment

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!