মন্দিরের দাযিত্বে পুলিশকে পরতে হবে ধুতি পাঞ্জাবি! কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের নতূন নিয়ম

কাশী বিশ্বনাথ
বারানসি (এজেন্সী) –   ভারতের উত্তর প্রদেশের বেনারসের কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ প্রচলিত ইউনিফর্ম পরতে পারবে না| পরতে হবে ধুতি পাঞ্জাবি| গত সোমবার থেকে সেখানে চালু হয়েছে এই নতুন পোশাক বিধি|
রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হওযার এক বছর পূর্ণ হতে চলেছে| গত বছরের ১৯ মে তিনি উত্তর প্রদেশের ক্ষমতায় বসেন| বছর পূর্ণ হওযার আগেই তিনি কাশীর মন্দিরের উন্নয়ন এবং নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন|
সেই পরিকল্পনার প্রথমটি হলো মন্দিরের নিরাপত্তার দাযিত্বে যেসব পুরুষ ও নারী পুলিশকর্মী নিযোজিত থাকবেন, তাঁদের পরতে হবে ধুতি ও পাঞ্জাবি এবং সালোযার ও কুর্তা| তবে মন্দিরের বাইরে নিযোজিত থাকা নিরাপত্তাকর্মীরা তাঁদের পুরোনো পোশাক পরেই অস্ত্র নিযে পাহারা দেবেন|

সোমবার থেকে নতূন পোশাকে পুলিসকে দেখে হতবাক দর্শনার্থীরা

সোমবার নতুন পোশাক পরে মন্দিরে দাযিত্ব পালনে পুলিশকর্মীদের দেখে হতবাক হযে যান দর্শনার্থীরা| ইতিমধ্যে বারানসির পুলিশ সুপার (নিরাপত্তা) শৈলেন্দ্র কুমার বলেছেন, মন্দির কর্তৃপক্ষের দাবির মুখেই রাজ্য সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে|
নির্দেশে বলা হয়েছে, পুরুষ পুলিশকর্মীরা পরবেন হলুদ পাঞ্জাবি বা কুর্তা ও ধুতি| আর নারী পুলিশকর্মীরা পরবেন সাদা সালোযার ও নীল কুর্তা| মন্দিরে নিযোজিত রয়েছেন ১৮ জন পুলিশকর্মী| মন্দিরের ট্রাস্টি বোর্ডের ট্রাস্টি প্রসাদ দীক্ষিত বলেছেন, তাঁদের এই দাবি ছিল দীর্ঘদিনের| সেই দাবি এবার মেনেছে উত্তর প্রদেশ সরকার|
মূলত মন্দিরের গর্ভগৃহে প্রচলিত প্রথা অনুসারে নিষিদ্ধ ছিল পশু চামড়ার তৈরি কোনো সামগ্রী, যেমন – জুতো ও বেল্ট| এবার তাই নতুন পোশাকবিধি চালু হওযায় আর কেউ জুতো ও কোমরে চামড়ার বেল্ট পরে মন্দিরে ঢুকতে পারবে না যদিও এই নতুন পোশাকবিধি চালু হওযায় হইচই শুরু হয়েছে রাজ্যজুড়ে| চলছে বিতর্ক|
Please follow and like us:
Loading...