রাষ্ট্রীয় কোষাগার প্রায় শূন্য ভয়াবহ বিপর্যের মুখে রয়েছে নেপাল

নেপাল
কাঠমান্ডু (এজেন্সী) – ভযাবহ বিপর্যয়ের মুখে রয়েছে নেপাল এবং তার অর্থনীতি|
দেশটির রাষ্ট্রীয় কোষাগারও প্রায় শূন্য হয়ে পড়েছে|
এমনটা জানিয়েছেন দেশটির অর্থমন্ত্রী ড: যুবরাজ খাটিওযাদা|
বাজেটের বারংবার বরখেলাপের কারনেই এই পরিস্থিতির উদ্ভব বলে মন্তব্য করেন খাটিওযাদা|
তিনি জানান দেশটির বর্তমান কর ব্যবস্থায় বড় রকমের কর রেযাতের সুযোগ থাকাতেই এই আর্থিক টানাপোড়েন|
নেপালের পার্লামেন্টে দেযা বক্তব্যে এসব বলেন তিনি|
তিনি বলেন, ‘খরচ করার ক্ষেত্রে নেযা ভুল সিদ্ধান্ত দেশের কোষাগার প্রায় খালি হযে গেছে|
বর্তমান আইনের কারণে করের পরিমাণ অনেক কমে গেছে|
আমরা কোন পরিকল্পনা ছাড়াই সম্পদের অপব্যবহার করেছি’|
আগামী ৩ মাসের মধ্যে নেপাল তাদের বার্ষিক বাজেট উত্থাপন করতে যাচ্ছে|

বিপদে পড়তে পারে নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি

বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থায় বিপদে পড়তে পারে ক্ষমতাশীন নেপালী কমিউনিস্ট পার্টি|
কেন্দ্রীয় শাসনের আওতায় থাকার কারণে আগামী কযে বছরের মধ্যে নেপালের বাজেটের আকার বাড়ানো দরকার|
কিন্তু অর্থের ঘাটতি দেশটির সরকারী কার্যরক্রম চালানোর ক্ষেত্রে বাধা হযে দাঁড়াতে পারে|
২০১০ সাল থেকে শুরু হযে দশকব্যাপী চলা মাওবাদী বিরোধী এবং ২০১৫ সালের প্রলযংকরী ভূমিকম্পের কারণে নেপালের অর্থনীতি নাজুক অবস্থায় রয়েছে|
দেশ থেকে রাজতন্ত্র শেষ হয়ে যাবার পর থেকেই নেপাল কখনই ভালে ভাবে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি।
কিছূ সময়ের জন্য ভারতে সাথে সম্পর্ক খারাপ হয়ে যাবার পর থেকে নেপালের অব্যস্থা আরোও খারাপের দিকে এগিয়েছে।
রাজনৈতিক অস্থিরতার দরুন ওখানে কোনো কাজ সময় মতন করে ওঠা সম্বব হয়ে ওঠেনি। তাই পর্যটন ব্যাবস্থা থেকে বিদেশী মুদ্রা আমদনী হলেও দেশের হাল ফেরেনি।
Please follow and like us:
Loading...