Press "Enter" to skip to content

নেপাল সীমান্ত থেকে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে দেবার ষড়যন্ত্র

  • সারা সীমানায় সরকার সতর্ক নজরদারী

  • সেখানের এক জালিম মুখিয়ার নাম এসেছে

  • অফিসাররা রাজ্য সরকারকে চিঠি লিখেছেন

রাকসৌল: নেপাল সীমান্ত আবার অশান্ত ভাব নিয়ে আছে। সেখানে

আজকাল কোরোনা সংক্রমণ  ছড়িয়ে দেবার একটি ষড়যন্ত্রের কখা

প্রকাশ পাবার পরে এই অশান্ত ভাব। স্থানীয় লোকজন এই খবর পাবার

পর সতর্ক আছে। সেখানের সব গ্রামে কোরোনার এমন ভয় যে

বাইরের কেউ এলেই সবাই সন্দেহের চোখে তাকে দেখছে। নেপাল

সীমান্ত দিয়ে রোজ যারা যাতায়াত করে তাদের হিসেবে এই

ষড়যন্ত্রে জালিম মুখিয়ার নাম উঠে আসছে। এই সম্পর্কে আরও কিছু

তথ্য পাওয়ার পরে সীমান্তের সমস্ত অঞ্চলকে সতর্ক করে দেওয়া

হয়েছে। এছাড়াও, রাকসৌল সীমান্তে পোস্ট করা এসএসবির পক্ষ থেকে বেতিয়ার ডিএমকে একটি

চিঠি লেখা হয়েছে। অতিরিক্ত মুখ্যসচিব আমির সুভানি বলেছেন যে এখনও পর্যন্ত নেপাল থেকে কেউ

বিহারে প্রবেশ করেনি। তবে অনুপ্রবেশের সম্ভাবনা রয়েছে। এ বিষয়ে সমস্ত সীমান্ত জেলার ডিএম ও

এসপিকে সতর্ক করা হয়েছে। একই সঙ্গে এসএসপিকে উচ্চ সতর্ক থাকার নির্দেশও জারি করা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রসচিব স্পষ্ট বলেছেন যে কেউ বিহারে অবৈধভাবে প্রবেশ করতে পারবেন না। পুলিশ চারদিকে

নজর রাখছে। বেতিয়ার ডিএম কুন্দন কুমার তার চিঠিতে জালিম মুখিয়া নামে এক ব্যক্তির কথা

উল্লেখ করেছেন, যে নেপাল থেকে বহু সন্দেহভাজন লোককে বিহারে করোনার ভাইরাস ছড়ানোর

জন্য বিহারে প্রবেশ করানোর চেষ্টা করছে। এক প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত সচিব বলেছিলেন যে পুলিশ

সকলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে এবং যে দোষী ছাড়া পাবে না। দিল্লি মারকাজ মামলায়

স্বরাষ্ট্রসচিব বলেছিলেন যে সমস্ত লোককে চিহ্নিত করা হয়েছে এবং সকলের নজর রয়েছে।

শুধু নাম না কাজেও সে জালিম বটে

যেম নাম তেমনি কাম। জালিম মুখিয়া সম্পর্কে সবাই এই কথাই ভাল ভাবে জানে। নাম জালিম মিয়া

এবং কাজটি হচ্ছে করোনায় সংক্রমিত কিছূ মুসলমানকে বিহারের সীমানা দিয়ে ভারতে প্রবেশ

করানো। এই কথাও উঠছে যে আসলে এই ষড়যন্ত্রের পিছনে পাকিস্তানের হাত আছে। কিন্তু ঠিক

সময়ে এই কখা শাসনের কানে পৌঁছে গেছে। পশ্চিম চম্পারান জেলা প্রশাসন নেপাল সংলগ্ন সীমান্তের

কর্মকর্তাদের একটি চিঠি লিখে জালিম মুখিয়ার দিকে নজর রাখার নির্দেশ দিয়েছে।

নেপালের সীমান্ত অঞ্চলে ভয়ের পরিবেশ

সশস্ত্র সীমা বল (এসএসবি) কর্তৃক প্রেরিত একটি চিঠি প্রকাশের পরে সেখানের লোকেদের উদ্বেগ

আরও বেড়েছে। এসএসবি বেতিয়ার ডিএম এবং এসপিকে পাঠানো চিঠিতে জানিয়েছে যে তবলিগি

জামাতের মাধ্যমে ভারতে লুকিয়ে থাকা বেশ কিছু লোক ছাড়া এবার নেপালের সীমান্ত হয়ে সেই

রুগিদের দেশে পাঠানোর ঘটনাও একটি ষড়যন্ত্র। চিঠিতে প্রধান ষড়যন্ত্রকারী হিসাবে জালিম

মুখিয়ার নাম উল্লেখ করা হয়েছে। জালিম মুখিয়া নামে এই ব্যক্তি নেপালের অন্তর্গত পারসা জেলার

সার্ভা থানা এলাকার জগন্নাথপুর গ্রামের বাসিন্দা। যা সরু পশ্চিম চম্পারনের সীমানার খুব কাছে।

নেপালে বসে সে ভারতবিরোধী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। তার বিরুদ্ধে চোরাচালান এবং অবৈধ অস্ত্র

সরবরাহে এর জড়িত থাকার অভিযোগ আছে। তবে ভারতের এই সতর্কতা কথা জানতে পেরে এখন

নেপাল সরকারও এই ব্যাপারে নড়ে চড়ে বসেছে।


 

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  

2 Comments

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!