Press "Enter" to skip to content

বিধায়ক অজিত শর্মা আবারও গরীবদের খাবারের কথা তুললেন

  • লক ডাউনটি প্রসারিত করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে

  • রেশন কার্ডের সমস্যা সমাধানের পক্ষে যথেষ্ট পুরনো

  • শুধু ঘোষণা নয়, দরিদ্রদের দুবেলা খেতে দিতে হবে

প্রতিনিধি

ভাগলপুর: বিধায়ক অজিত শর্মা আবার লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর স্বাগত জানিয়ে

ক্ষুধার্তদের জন্য খাদ্য খাতে জমে থাকা ব্যয়ের পরিবর্তে কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারকে কড়া

পদক্ষেপ নিতে বলেছেন। ভাগলপুরের স্থানীয় বিধায়ক অজিত শর্মা একইভাবে মুখর বক্তা

হিসাবে পরিচিত। লকডাউনের সময়কালেও যারা তাঁর বাড়িতে আসেন তাদের সহায়তা বা

পরামর্শ দেওয়ার কাজ তিনি ছেড়ে দেননি। অভাবী লোকদের সামাজিক দূরত্ব অনুসরণ করে

তাদের বাসায় শুনে নেওয়া হচ্ছে। যতদূর সম্ভব, এই ধরনের মানুষের সমস্যাগুলিও সমাধান

করা হচ্ছে।

ভিডিওতে ভাগলপুরের বিধায়ক কী বলছেন তা দেখুন

আজও রাষ্ট্রীয় খবরের সাথে আলোচনায় তিনি লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর প্রধানমন্ত্রীর

সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। তবে তিনি তার এলাকার দরিদ্র ও ক্ষুধার্তদের দু’বার খাবার

সরবরাহের বড় প্রশ্নও উত্থাপন করেছিলেন। মিঃ শর্মা বলেছেন যে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নিজেই

গতকাল তার সংবাদ সম্মেলনে রেশন কার্ড সম্পর্কে তথ্য দিয়েছেন। এই সমস্যাটি কোনও

করোনার সাথে সম্পর্কিত নয়। বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে তিনি নিজেই বিধানসভায় এই

বিষয়ে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন। বিধায়ক শ্রী শর্মা বলেছিলেন যে করোনায় সংকট

এতটাই মারাত্মক যে দরিদ্রদের কিছু খাবার নেই। এমন পরিস্থিতিতে কেবল ঘোষিত দরিদ্রদের

পেট ভরবে না। কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের উচিত এই দিকটিতে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া।

বিধায়ক অজিত শর্মা বলেছেন গরীবদের খাদ্য জরুরী

এই জন্য দরিদ্ররা যেখানেই

খাবারের ব্যবস্থা করে সেখানে এর

জন্য বিশেষ কর্মসূচি চালানো

দরকার। অন্যথায়, রেশন কার্ড

যাচাইকরণ বা অন্যান্য সরকারী

পদ্ধতিতে সময় লাগার কারণে দরিদ্ররা অনাহারে থাকবে। তিনি আবার বলেছিলেন যে স্রেফ

ঘোষণা দেওয়ার পরিবর্তে এই দিকটিতে দৃঢ় পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি।


 

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  

2 Comments

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!