ভারতে সংখ্যালঘু ও দলিতদের উপর অত্যাচারের ঘটনা বাড়ছে – মনমোহন সিং

মনমোহন সিং
নয়া দিল্লি  (এজেন্সী) – ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও কংগ্রেসের সিনিযর নেতা ড. মনমোহন সিং বলেছেন, ভারতে সংখ্যালঘু ও দলিতদের উপর অত্যাচারের ঘটনা বাড়ছে|
বুধবার পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে ভাষণ দেযার সময তিনি ওই মন্তব্য করেন|
তিনি বলেন, আমার গভীর উদ্বেগ সম্পর্কে বেশি কিছু বলার প্রযোজন নেই যে
ভারতীযদের ধর্ম, জাতি ও ভাষা সংস্কৃতির ভিত্তিতে বিভক্ত করার চেষ্টা হচ্ছে|
ড. মনমোহন সিং বিভেদের রাজনীতি ও নীতি পরিত্যাগ করার আহ্বান জানিয়ে
বলেন, ওই ঘটনা প্রতিহত করতে না পারলে দেশের গণতন্ত্রই সঙ্কটের মুখে পড়বে|

স্বাধীনতার ব্যাখ্যা করলেন মনমোহন সিং

তিনি বলেন, ‘দেশের স্বাধীনতা মানে কেবল মাত্র সরকারের স্বাধীনতা নয, তা মানুষের স্বাধীনতা|
শুধু প্রভাবশালী ও বিশেষ অধিকারপ্রাপ্তদের স্বাধীনতা নয, সাধারণ মানুষের স্বাধীনতা|
স্বাধীনতা মানে প্রশ্ন তোলার স্বাধীনতা, মত প্রকাশের স্বাধীনতা|
এক জনের স্বাধীনতার অর্থ এটা নয য়ে অন্যের স্বাধীনতা হরণ করা হবে|’
ড. মনমোহন সিং বলেন, ‘গরীব ও ধনীর মধ্যে ব্যবধান বাড়তে থাকলে উন্নযনের
রথ ছুটিয়ে কোনো লাভ নেই|
সমাজ অর্থনীতি রাজনীতিসহ প্রত্যেক ক্ষেত্রে নতুনভাবে সাম্য প্রতিষ্ঠার আন্দোলন
শুরু করতে হবে|’
ড. মনমোহন সিং পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে ওই অনুষ্ঠানে পেশীশক্তি ও অর্থের বহুল
ব্যবহারের ফলে দেশের নির্বাচন ব্যবস্থা দুর্বল হয়ে পড়ছে এবং ওই অব্যবস্থা
দূর করার জন্য নির্বাচনী প্রক্রিযায সংস্কার করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন|
একজন অনুভবী অর্থশাস্ত্রী হিসেবে ড. মনমোহন সিং কে পুরো বিশ্ব চেনে।
ভারতের টাল খাওয়া অর্থব্যাবস্থাকে ঠিক পথে আনতে তার বড় যোগদান আছে।
তাই তার কথা আজও গম্ভীর ভাবে শোনা হয়।
নোটবন্দী এবং জিএসটি লাগূ করার সময়েও মনমোহন সিং বলেছিলেন যে
খুব ব্যাস্ততার ভেতরে এই দুটোকে ব্যাবহার করা ঠিক হয়নি।
এর জন্য দেশের অর্থনীতি ধাক্কা খাবে। সাধারন মানূষের কষ্টের কথার উল্লেখ
করে পূর্ব প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন যে বাচ বিচার না করে হটাত এই ধরনের
কড়া নিয়ম লাগূ করতে নেই।
কেননা দেশ এর জন্য প্রস্তুত না থাকলে সাধারন মানূষকে এর জন্য অনেক কষ্ট সহ্য করতে হয়।

 

Please follow and like us:
Loading...