Press "Enter" to skip to content

মালদা শহরের ঘোড়াপীর এলাকায় টোটোতে বিস্ফোরনে চালকের মৃত্যু

  • শহরের দিকেই মাল লোড করে যাচ্ছিলো গাড়ী

  • কেন এত বড় বিস্ফোরণ সেটা খুঁজছে পুলিস

  • ধোঁয়া পরিষ্কার হলে রাস্তার মানুষ দেখলো

  • চালকের মাথা উড়ে গিয়ে বাড়ির চালে

প্রতিনিধি

মালদাঃ মালদা শহরের ঘোড়াপীর এলাকায় চলন্ত টোটোতে হঠাৎ বিস্ফোরণ, ছিন্নভিন্ন হয়ে

গেল চালকের দেহ। মাথার খুলি উড়ে গিয়ে পড়লো রাস্তার বাড়ির চালে। হাত, পা টুকরো

টুকরো হয়ে রাস্তায় ছিটিয়ে পড়ে চালকের। মুহুর্তের মধ্যে ধোঁয়ায় ভরে যায় গোটা এলাকা।

বুধবার বিকেলে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মালদা শহরের ঘোড়াপীর এলাকায়। কি কারণে এই

বিস্ফোরণ তা জানতে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। পাশাপাশি সিআইডি

বোম স্কোয়াডের টিম তদন্ত শুরু করেছে। যদিও শেষ পাওয়া খবরে ওই টোটো চালকের নাম

এবং পরিচয় জানা যায় নি। তবে গোটা টোটোটি ছিন্নভিন্ন হয়ে গিয়েছে। এই ধরনের ঘটনা

রাজ্যে প্রথম বলেই মনে করছে জেলা পুলিশ এবং সিআইডির কর্তারা। এর আগে টোটো

বিস্ফোরণ এবং চালকের মৃত্যুর ঘটনার কোন উদাহরন নেই বলেই পুলিশের একাংশ দাবি

করেছে।

এই ধরণের বিস্ফোরণের আগে কোন উদাহরণ নেই

প্রত্যক্ষদর্শীরা পুলিশকে জানিয়েছেন, ওই টোটোতে কিছু ফাইবার ও কাঠের দরজা এবং কাঠমিস্ত্রি

যেগুলো সামগ্রী ব্যবহার করে সেগুলোই মজুত ছিলো। ওই টোটোটি মালদা শহরের দিকে

যাচ্ছিল। হঠাৎ করে বাগবাড়ি স্ট্যান্ড থেকে কুড়ি মিটার দূরত্বে রাজ্য সড়কে ব্যাপক বিস্ফোরণ

ঘটে। গোটা এলাকা কেঁপে যায়। টোটোর বিস্ফোরণে ধোঁয়ায় ভরে যায় গোটা এলাকা। এরপরই

আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে ঘোড়াপীর এলাকায়। দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়ে যায় সাধারণ পথচারীদের মধ্যে।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতেই চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দাদের।

মালদা শহরের ঘোড়াপীর এলাকায় মৃতদেহ ছিন্ন ভিন্ন

পুলিশ তদন্তে এসে দেখতে পাই টোটো চালকের ছিন্নভিন্ন দেহ রাস্তায় পড়ে রয়েছে। হাত, পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে‌। মাথার খুলি রাস্তার ধারে একটি বাড়ির টালির চালে গিয়ে রক্ত মাখা অবস্থায় ঝুলে রয়েছে।

হাড় হিম করা এই পরিস্থিতি দেখে অনেকেই আঁতকে ওঠেন।

ইংরেজবাজার থানার পুলিশের তদন্ত চলার পাশাপাশি ঘটনাস্থলে আসে সিআইডি’র কর্তারা।

তবে কী কারণে এই বিস্ফোরণ তা পরিষ্কার করে কিছুই জানাতে পারেননি তদন্তকারী পুলিশ

কর্তারা।

পুলিস এখনই এই ব্যাপারে সিদ্ধান্তে পৌঁচাচ্ছে না

ইংরেজবাজার থানার তদন্তকারী এক পুলিশ কর্তা জানিয়েছেন, অনেকেই বলছেন টোটোর

ব্যাটারি গরম হয়ে যাওয়ার কারণে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে। যদি ব্যাটারি থেকে বিস্ফোরণ

ঘটতো, তাহলে এরকম মারাত্মক আকার নিত না। শক্তিশালী বিস্ফোরণের ঘটলেই এরকম

ভাবেই দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে যাওয়ার বিষয়টি অতীতের বিভিন্ন ঘটনায় উঠে এসেছে। কিন্তু ওই

টোটোতে কি ধরনের পদার্থ মজুদ ছিল, তা অবশ্য সিআইডির টিম তদন্ত করে দেখছে‌। তবে

টোটোটি একেবারেই দুমড়ে-মুচড়ে কয়েক টুকরো হয়ে গিয়েছে। কাজেই তদন্তের ক্ষেত্রে কিছুটা

বেগ পেতে হচ্ছে পুলিশ ও সিআইডি কর্তাদের। পাশাপাশি মৃত টোটো চালকের কোন পরিচয়

জানা যায় নি। ওই টোটোতে অন্য কোনো যাত্রী ছিল না বলে জানতে পেরেছেন তদন্তকারী পুলিশ

কর্তারা।

পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, মালদা শহরের ঘোড়াপীর এলাকায় বিস্ফোরণ

ঘটনা শুনেছি। কি কারণে এই বিস্ফোরণ তা তদন্ত না করে পরিষ্কারভাবে বলা যাবে না।

একজনের মৃত্যুর খবর রয়েছে। তার পরিচয় জানা যায় নি। পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু

করা হয়েছে। তার রিপোর্ট এলে এই বিষয়ে কিছূ বলা যাবে।


 

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
More from HomeMore posts in Home »
More from অপরাধMore posts in অপরাধ »
More from আজব খবরMore posts in আজব খবর »
More from তাজা খবরMore posts in তাজা খবর »
More from দূর্ঘটনাMore posts in দূর্ঘটনা »
More from পশ্চিমবঙ্গMore posts in পশ্চিমবঙ্গ »

Be First to Comment

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!