কাশ্মিরে ইস্তফা দেয়া মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলায বিচার করতে হবে – সিপিআই (এম)

0 37
জম্মু (এজেন্সী) – জম্মু কাশ্মিরে ইস্তফা দেয়া দু’জন বিজেপি মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলায় বিচার করতে হবে বলে দাবি জানিয়েছে সিপিআই(এম)এর পলিটব্যূরো।
শনিবার সি পি আই (এম) বলেছে, কেবলমাত্র পদত্যাগই যথেষ্ট নয়|
ওই দু’জনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলায় অপরাধের বিচার হওয়া প্রযোজন|
রাজ্য সরকারকে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে হবে|
যে আইনজীবীরা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিতে বাধা দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেবার দাবি করেছে দলটি|
জম্মু কাশ্মিরের কঠুযায় এক শিশুকে গণধর্ষণ ও হত্যায় অভিযুক্তদের পক্ষ নেবার অভিযোগে পিডিপি ও অন্য বিরোধীদের চাপের মুখে বিজেপি র দু’জন মন্ত্রী লাল সিং ও চান্দের প্রকাশ গঙ্গা গতকাল পদত্যাগ করেছেন|
রাজ্যে বর্তমানে পিডিপি ও বিজেপি জোট সরকার ক্ষমতায় রয়েছে|
সিপিআইএমের বলেছে, ‘এটি হত্যা ও ধর্ষণের ভযংকর ঘটনা|
শিশুটিকে আটকে রেখে তাকে নিস্তেজ করে বর্বর নির্যাতন চালানো হয়|
ধৃত অভিযুক্তদের পক্ষ নিযে জম্মু ও কাশ্মিরের দু’জন মন্ত্রী জঘন্য অপরাধীদের আড়াল করতে ধর্মীয মোড়ক দেবার চেষ্টা করেছেন| বি জে পি র ওই দুই মন্ত্রীর ভূমিকা আমাদের স্তম্ভিত করছে!
কঠুযার রসনায অপহরণ করে একটি মন্দিরে ৭ দিন ধরে গণধর্ষণ করে নির্মমভাবে হত্যা করা হয় ৮ বছরের শিশু আসিফাকে|
পরে একটি জঙ্গল থেকে তার ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার হয়|
ভযাবহ ওই ঘটনায অপরাধীদের আড়াল করতে হিন্দু একতা মঞ্চের নামে মিছিলের নেতৃত্ব দেন রাজ্যের দু’জন বি জে পি মন্ত্রী|

কাশ্মিরে ঘটনার সাফাই দিয়েছেন বিজেপির রাম মাধব

বিজেপি’র সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব ওই অভিযোগ নাকচ করে এক সাফাইতে বলেন, ‘গত ১ মার্চ কঠুযায় মানুষজন উত্তেজিত হয়ে উঠেছিলেন|
আমাদের দুই মন্ত্রী সেদিন তাদের শান্ত করতে গিয়েছিলেন|
সেখানেই কোনো একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়|
মন্ত্রীদের আরো সতর্ক থাকা উচিত ছিল| কিন্তু তদন্ত প্রক্রিযায় হস্তক্ষেপ করার কোনো ইচ্ছা তাদের ছিল না|
ধর্ষকদের আড়াল করার যে অভিযোগ উঠছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন|’
এদিকে, মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ফাস্ট ট্র্যাাক কোর্ট গঠন করে ওই মামলার দ্রুত শুনানি ও অপরাধীদের চূড়ান্ত শাস্তির দাবিতে জম্মু কাশ্মির হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি রামলিঙ্গম সুধাকরের কাছে আবেদন জানিয়েছেন|
এদিকে জাতিসঙ্ঘের পক্ষ থেকে কাশ্মিরের ওই শিশুহত্যাকে ভয়ঙ্কর ঘটনা বলে মন্তব্য করা হয়েছে|
জাতিসঙ্ঘের মহাসচিব আন্তেনিও গুতেরেসের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেন, আমরা আশা করব প্রশাসন দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোরতম ব্যবস্থা গ্রহণ করবে|
এভাবে জাতিসঙ্ঘের মহাসচিবের বিবৃতি প্রকাশ্যে আসায় ভারত ওই ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়েছে বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন|

You might also like More from author

Comments

Loading...