লালগোলা পুলিশের তৎপরতায় ইন্দো-বাংলা সীমান্ত থেকে  জোরালো মাদক সহ ২ পাচারকারী গ্রেপ্তার

wine
Spread the love
পরাগ মজুমদার, মুর্শিদাবাদ
মাদক পাচার করতে গিয়ে ধরা পড়ল দুই পাচারকারী।

পাচারের আগেই এলাকার একটি বেসরকারী বিএড কলেজের সামনে থেকে জোরালো মাদক

বমাল কোডাইন ফসফেট মিক্সচার সহ ২ পাচারকারীকে গ্রেফ্তার করল লালগোলা থানার পুলিশ।

ধৃতদের নাম  সিদ্দিক হোসেন ও নান্টু আলী।

৫ দিনের পুলিশ হেফাজতের আবেদন চেয়ে মঙ্গলবার ধৃতদের বহরমপুর এনডিপিএস আদালতে তাদের তোলা হয়।

শেষ পাওয়া খবরে জানা গেছে যে বিচারক ধৃতদের আগামী ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ৩ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে যে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে লালগোলা থানার দক্ষ ওসি

সৌম্য দে র নেতৃত্বে  থানার পুলিশ বাহিনী বহরমপুর – জঙ্গিপুর রাজ্য সড়কের ঘোলদহ এলাকার

ওই বেসরকারি বিএড কলেজের সামনে  ফাঁদ পেতে বসেন ।

সূত্রের কথা মত ওই পাচারকারীরা মাদক নিয়ে ওখানে আসতেই পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে।

ধৃতদের কাছ থেকে প্লাস্টিকের জার ভর্তি  ১০ লিটার জোরালো মাদক কোডাইন ফসফেট উদ্ধার হয়।

জেরায় পুলিশ জানতে পারে  ধৃত সিদ্দিকের বাড়ি থানার কানাপাড়া ও নান্টুর বাড়ি রাধাকৃষ্ণপুর এলাকায়।

পুলিশের প্রাথমিক অনুমান যে ওই জোরালো মাদকের বড় মাপের চাহিদা রয়েছে বাংলাদেশ এলাকায়।

সেখানেই ওই মাদক পাচারের চেষ্টা চলছিল।

তবে এর সাথে আর কে বা কারা জড়িত আছে তা জানতে ধৃতদের কাছ থেকে জেরায় মেলা তথ্য খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

সূত্র বলছে যে এই এলাকায় এর আগেও এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে।

মাদক পাচারকারীরা আগেও এখান থেকে বাংলাদেশে মাদক পাচার করেছে।

এলাকাটি বাংলাদেশের সীমান্তে থাকায় পাচারকারীদের বেশ সুবিধা হয়।

এদেশের পাচারকারীরা কাঁটা তারের বেড়াকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে অনায়াসে গোপনে এই সব কাজ

চালিয়ে যাচ্ছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ, যদিও তাঁরা পুলিশকে এই ব্যাপারে কিছু জানাতে রাজী নন।

Author: Bangla R khabar

Loading...