ভারত চিন যুদ্ধে আসলে কি ঘটেছিল জানতে হলে দেখতে হবে নতুন ছবি পল্টন

paltan

 

প্রতিনিধি

মুম্বাইঃ ভারতের সেনাবাহিনীর বীরত্বের কাহিনী আবার একবার সেলুলয়েডের পর্দায়।

এবার অবশ্য ইন্ডো-পাকিস্তান নয়, বরং দুনিয়া দেখবে ভারত চীনের যুদ্ধের কাহিনী।

এই কাহিনি দেশের এক গর্বের অধ্যায়ের। যেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেপি দত্ত ‘পল্টন’  ছবিটি  তৈরী করেছেন, সেটা সত্যি ঘটনা।

নাথুলা পাসে ইন্দো-চিন যুদ্ধের আবহকে কেন্দ্র করে এই ছবি তৈরি হয়েছে।

কেমন ছিল সেই যুদ্ধ,  কীই বা ঘটেছিল সেখানে? আমাদের না জানা এই সব প্রশ্নের জবাব দিয়েছে ‘পল্টন’।

ছবির ঘটনা ৬০ এর দশকের।

৬২ সালের সেই ইন্দো-চীন যুদ্ধের পর যখন চিনা সৈনিকরা পিছপা হটেছিল,  তারপর ফের একবার পাল্টা লড়াইয়ের চেষ্টায় ছিল চিন।

১৯৬৫ সালে নাথুলা পাসে ইন্দো-চিন উত্তেজনামূলক এক পরিস্থিতিকে সেলুলয়েড বন্দি করেছেন পরিচালক জেপি দত্ত।

অর্জুন রামপাল এই ছবির লেফনান্ট কর্ণেল রাই সিং এবং  সোনু সুদ মেজর বিষেণ সিং -এর চরিত্রে রয়েছেন।

ভারতীয় সেনার চিনকে প্রতিহত করার কাহিনী

কীভাবে ভারতীয় সেনা চিনের সেনাকে প্রতিহত করেছে, তা নিয়েই মূলত গল্প বেঁধেছে ছবিটি।

পরিচালনা থেকে শুরু করে এই ফিল্মের চিত্রনাট্য এবং গল্প সমস্তটাই লিখেছেন পরিচালক জেপি দত্ত।

রিয়েল লোকেশনে শ্যুটিং এই ছবির চিত্রনাট্যকে আরও প্রাণবন্ত করে তুলেছে।

পাশাপাশি যুদ্ধের ময়াদানে জওয়ানদের পারস্পরিক সম্পর্ক কেমন হয়ে থাকে,

দেশের জন্য লড়াইয়ের গর্ব, সেই সমস্ত অনুভূতিই ফুটে উঠেছে ছবিতে।

ছবিতে মাল্টি স্টারকাস্ট থাকলেও বা কাহিনীতে অনেক রকম শেড থাকলেও সেভাবে ছবিটি প্রভাব ফেলতে পারেনি।

অর্জুন রামপাল ও সোনু সুদ যেভাবে নিজের ১০০ শতাংশ এই ছবিতে দিয়েছেন,

সেই রকমভাবে এই ছবিতে অন্য অভিনেতারা নিজেদের পুরোটা দিতে পারেননি।

জ্যাকি শ্রফ এই ছবির গুরত্বপূর্ণ চরিত্রে থাকলেও, সেভাবে প্রভাব ফেলতে পারেননি দর্শকদের মনে।

এমনিতে ভারতীয় সেনাদের বীরগাথার কাহিনি সবসময়ই আকর্ষণীয়।

এর আগেও বর্ডার ছবিতে দর্শকরা সেনাদের অনেকগুলো শেড দেখেছেন। ছবিটি বেশ হিট হয়েছিল।

Please follow and like us:

Author: Bangla R khabar

Loading...