Press "Enter" to skip to content

ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের কোন টানাপড়েন নেইঃ কাদের




প্রতিনিধি

ঢাকাঃ ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের কোন টানা পড়েন নেই বলে জানিয়েছেন

বাংলাদেখের মন্ত্রী ওবায়দূল কাদের। আসামের নাগরিকত্ব তালিকার

(এনআরসি) বিষয়ে বাংলাদেশের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই এমন আশ্বাস

আগেই দিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তারপরও ভারতের

আসামে এনআরসির কারণে বাংলা ভাষাভাষীর মানুষ উদ্বিগ্ন। এ অবস্থায়

সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করা ৪৬ জনকে আটক করে বর্ডার

গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এতে ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক খারাপ

হয়ে গেলো কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক

তথা সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কোনো টানাপড়েন হয়নি।

এনআরসির ব্যাপারে ভারতের সঙ্গে আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কোনো

ঘাটতি হবে না। ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে কোনো টানাপড়েন

সৃষ্টি হয়নি। সোমবার সচিবালয়ে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে ডাকা সাংবাদিক

বৈঠকে আসেন ওবায়দুল কাদের। বলেন, অতীতে উবয় দেশে আলোচনার

মধ্য দিয়ে অনেক বিষয়ে মিশাংসা হয়েছে। এবারেও হবে। আর বাংলাদেশের

বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে এম আব্দুল মোমেন রবিবার বলেছিলেন, বাংলাদেশে

থাকা-খাওয়াসহ নানা রকম সুযোগ সুবিধা বেশি রয়েছে। এমন কথা

বলে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেওয়া মোট ২৪০ জনকে আটক করে বিজিবি।

এমন পরিস্থিতিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কিছু থাকলে

উদ্বেগতো কিছু থাকবেই। এটা দ্বিপাক্ষিক আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান

করা হবে। কাদের আমরা উদ্বেগের কারণ দেখছি না। সাময়িক একটা অস্বস্তির

কারণে এমনটা হচ্ছে। এর আগেও অনেক বিষয় আলাপ-আলেচনা করেই আমরা

সমাধান করেছি। এ বিষয়টিও আলোচনা করে সমাধান করা হবে।

ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের অবনতি ত্রিপুরার পরে

ত্রিপুরায় দুই জন স্মাগলারকে ধরতে ভারতের ভিতরে বাংলাদেশের সেনা

প্রবেশের পর থেকে সীমান্তে অতিরিক্ত সতর্কতা আছে। এর মাঝে পদ্মার

মাঝে জেলেদের আটক করা নিয়ে যে ঝামেলা হয়েছিলো, সেটা সম্পর্কে আরও

অবনতি ঘটিয়েছে। সেই ঘটনার সময় বাংলাদেশ সেনার গুলিতে বিএসএফ

এর এক হাবিলদার মারা গিয়েছেন। তার পর থেকে দুই পক্ষ অতি সতর্ক

অবস্থ্যায় থাকে। কিছূ দিন আগে অযোধ্যা মামলার রায় আসার পরে

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির একটি জাল চিঠে ছড়িয়ে পড়ার পরে

ভারতীয় হাইকমিশনকে এই ব্যাপারে বিবৃতি দিয়ে হয়েছিলো। এক পর থেকে

দুই দেশের সম্পর্ক ভাল রাখার জন্য দুই তরফের কাজ আরম্ভ করা হয়েছে।

Spread the love

One Comment

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.