পশ্চিমবঙ্গে পঞ্চায়েত নির্বাচন প্রক্রিযায স্থগিতাদেশ দিল হাইকোর্ট, খুশি বিরোধীরা

স্থগিতাদেশ
কলকাতা (এজেন্সী) পশ্চিমবঙ্গে পঞ্চায়েত নির্বাচন প্রক্রিযায কোলকাতা হাইকোর্ট স্থগিতাদেশ দেযায বিরোধীরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন|বৃহস্পতিবার পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে এক মামলার শুনানিতে আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যথন্ত নির্বাচন কমিশন কোনো পদক্ষেপ নিতে পারবে না বলে আদালত অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশ দিয়েছে|
এর ফলে আগামী সোমবার পর্যনন্ত মনোনযন পরীক্ষাসহ মনোনযন প্রত্যাহার করার প্রক্রিযা বন্ধ থাকবে|
এদিকে,পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একই ইসু্যতে সুপ্রিমকোর্ট এবং হাইকোর্টে মামলা
করে তথ্য গোপন করার অভিযোগে মামলাকারীকে (বিজেপি)কে ভর্ত্সনা করে
পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা দেযার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট|
রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূলের এমপি ও সিনিযর আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায
বলেন, ‘আদালত নির্বাচন কমিশনকে স্টেটাস রিপোর্ট পেশ করতে বলেছে|
আগামী সোমবার আদালতে পুনরায ওই মামলা উঠবে|
নির্বাচন কমিশনের রিপোর্ট দেখে আদালতে আবার বিচার হবে|
কিন্তু ১৬ এপ্রিল পর্যকন্ত রাজ্য নির্বাচন কমিশন আর কোনো পদক্ষেপ নিতে পারবে না|’
তৃণমূলের এমপি কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায বলেন, রাজ্য সরকার আজকের ওই রায়ে বিরুদ্ধে ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন জানাবে|
এদিকে হাইকোর্টের ওই রাযকে ‘ঐতিহাসিক রায’ বলে মন্তব্য করেছেন বিজেপি’র
কেন্দ্রীয নেতা রাহুল সিনহা|
তিনি বলেন, ‘পঞ্চায়েত নির্বাচনে আদালত য়ে স্থগিতাদেশ দিয়েছে তা গণতন্ত্রের
জয, সততা ও নৈতিকতার জয|
পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে এত বড় রায হাই কোর্ট কখনো দেযনি|’
পঞ্চায়েত নির্বাচনে মনোনযন পত্র জমা দিতে বাধা দেয়া সহ নানা অনিযম ও
সহিংসতার বিরুদ্ধে আজ বিজেপির পক্ষ থেকে গান্ধী মূর্তির নীচে ধর্না অবস্থানে
শামিল হন দলটির রাজ্য ও কেন্দ্রীয নেতারা|
আজ হাই কোর্টের রায়ে রাজ্য কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী সন্তোষ প্রকাশ
করে বলেন, নির্বাচন নিয়ে রাজ্য সরকার স্বৈরাচারী মনোভাব নিয়েছে|
সরকার ও নির্বাচন কমিশন আমাদের য়ে কথা শুনছে না আদালতের সামনে তা আমরা জানিয়েছি|
Please follow and like us:
Loading...