Press "Enter" to skip to content

জেনেটিক পদ্ধতির পরিবর্তিত নিউরন বিকল্প অঙ্গের কাজ করবে

  • মানুষের অভ্যন্তরীণ অঙ্গগুলি মেরামত করার নতুন উদ্যোগ

  • মানবদেহের ত্রুটিগুলি সংশোধন করার নতুন প্রচেষ্টা

  • অভ্যন্তরীণ অঙ্গ প্রতিস্থাপনও ত্রাণ সরবরাহ করবে

  • বাহ্যিকভাবে নিয়ন্ত্রণের পদ্ধতিতে কাজ শুরু

প্রতিনিধি

নয়াদিল্লি: জেনেটিক পদ্ধতির মাধ্যমে শরীরের মধ্যে অনেক কিছু করা যায়। গবেষকরা আসলে এই

জিনগত পদ্ধতিটি আরও বেশি করে শরীরের অভ্যন্তরে রোগ নিরাময়ের দিকে চেষ্টা করতে চান।

এখন এটি দেখা যাচ্ছে যে জেনেটিক পদ্ধতিতে সংশোধিত নিউরোনগুলি অভ্যন্তরীণ অঙ্গগুলি নিরাময়

বা তাদের কাজ শেষ করার দায়িত্বও নিতে পারে কিনা। এর আগেও, এই দিকের অনেক পরীক্ষা সফল

এবং উত্সাহজনক প্রমাণিত হয়েছে। গবেষণার সাথে জড়িত বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে এই

জিনগত পদ্ধতিগুলির সংশোধনটি নিউরনটি শরীরে পৌঁছে দিতে পারে এবং তাদের নির্দেশিত সমস্ত

কাজ করতে পারে। এই কারণে, এটি চিকিত্সা জগতে নতুন পথ খুলতে পারে। জেনেটিক

রোবটগুলির সাহায্যে, মানব দেহ নিয়মিত ওষুধ দেহে দেহের পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্থ অঙ্গগুলি মেরামত

করার দিকনির্দেশ পায় এই কৌশলটিও সফলভাবে চেষ্টা করা হয়েছে। এখন এই গবেষণাটিকে আরও

পরিশীলিত করার দিকে বৈজ্ঞানিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা হয়েছে

স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরাও এই দিকে কাজ করেছেন। এই লোকেরা জেনেটিক পদ্ধতিতে

নিউরনগুলিকে প্রোগ্রাম করেছেন। তারা বিশ্বাস করে যে এই পরিবর্তনগুলি এই নিউরনে উপস্থিত

বৈদ্যুতিক চার্জের শর্ত পরিবর্তন করে। এটি বিশেষত পার্কিনসন এবং এপিলেপসির মতো রোগে

আক্রান্ত রোগীদের উপকার করতে পারে। একই সঙ্গে, স্নায়ুর বৈদ্যুতিক তরঙ্গ ব্লক হওয়ার ফলে সৃষ্ট

অন্যান্য রোগগুলিও পুরোপুরি নিরাময় হতে পারে। জেনেটিক পদ্ধতির পরিবর্তিত নিউরন তার

লক্ষ্যের দিকে বাধা দেওয়ার পরে বৃদ্ধি পায়। এটি যে কাজের জন্য তাকে প্রেরণ করা হয়েছিল তা

সম্পূর্ণ করে। গবেষণার সাথে যুক্ত লোকেরা বিশ্বাস করেন যে এই সংকেতগুলির সাহায্যে দেহের

অভ্যন্তরে ক্ষতিগ্রস্থ অঙ্গগুলিও নতুন করে তৈরি করা যায়। এমন পরিস্থিতিতে, তখন অঙ্গ

প্রতিস্থাপনের প্রয়োজনীয়তাগুলি দূর হয়ে যাবে এবং রোগীর দুর্বল অঙ্গগুলি কেবল জিনগত

পরিবর্তনের নতুন পদ্ধতি থেকে সঠিকভাবে কাজ শুরু করবে।

জেনেটিক পদ্ধতির বিকাশের কাজ দীর্ঘদিন ধরে চলছে

জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্বে এই কাজটি দীর্ঘদিন ধরেই চলছে। এই পরিবর্তনের কারণে নির্দিষ্ট

ধরণের স্নায়ু পুনরজ্জীবিত করার ক্ষেত্রেও উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, এই পদ্ধতিটি

প্রতিটি অংশের বৈদ্যুতিক চার্জের শর্তগুলি নির্ভুলভাবে আনতে পারে যা কোনও কারণে বন্ধ হয়ে

গেছে। এইভাবে, হাড়ের অপূর্ণতাগুলি কেবল অপসারণ করা যায় না, তবে বাইরে থেকে প্রাপ্ত

বার্তাগুলির উপর ভিত্তি করে কেবল এই নিউরনগুলি পুনরায় তৈরি করা যায়। এ জাতীয়

পরিস্থিতিতে মানবদেহের হাড় প্রতিস্থাপনের সমস্যাও স্থায়ীভাবে কাটিয়ে উঠতে পারে। বিজ্ঞানীরা এই

কাজটি করার জন্য পলিমার ভিত্তিক এনজাইমের সাহায্য নিয়েছেন। এই পদ্ধতিতে মস্তিষ্কের অভ্যন্তরে

যে শক্তি রয়েছে তাও সঠিকভাবে কাজ করতে পারে, বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন। মস্তিষ্কের জীবিত

সদস্যরা তাদের মাধ্যমে বার্তা পেয়েও নতুন কাজ করতে পারে। বয়সের কারণে বা অন্যান্য কারণে

মস্তিষ্কের অনেকগুলি অংশ বন্ধ হয়ে গেছে যা আবার নতুন করে সক্রিয় হতে পারে। গবেষণার সাথে

জড়িত লোকদের মতে, বিদ্যুতের শক্তির কারণে এটি কেবল শরীরের বিভিন্ন অংশে তাজা শক্তি

স্থানান্তরিত করার বিষয়। এই শক্তি সঞ্চালনের সাথে সাথে এই সমস্ত অঙ্গগুলি সঠিকভাবে কাজ করা

শুরু করে, যার কোনওরকম ত্রুটি রয়েছে।

নিউরন ইমপ্লান্ট সহ রোগ নিরাময়ের অনুসন্ধান

যে পরীক্ষা চলছে, তাতে নিউরন ইমপ্লান্ট মস্তিস্কে প্রবেশ করে। এটি মস্তিষ্কের সেই অংশে পৌঁছে যায়

যেখানে মাথার ঘিলুর কোষ নিউরনকে সুরক্ষিত করে। এই স্থানে পৌঁছানোর পরে, জেনেটিক পদ্ধতির

পরিবর্তিত নিউরন পারস্পরিক প্রতিক্রিয়া দ্বারা আরও শক্তির সাথে কাজ করতে সক্ষম হওয়ায় এই

জাতীয় কাজ করার নির্দেশাবলী ইতিমধ্যে পেয়েছে। এই পদ্ধতির সফল পরীক্ষার পরে, বিজ্ঞানীরা

এখন তাদের নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি পদ্ধতি তৈরি করতে চান। বর্তমানে বাইরে থেকে এগুলি নিয়ন্ত্রণ

করার কোনও পদ্ধতিই তৈরি করা হয়নি। তাই আশঙ্কা করা হচ্ছে যে কোনও কারণে তারা যদি

সঠিকভাবে কাজ না করে তবে তাদের তাত্ক্ষণিকভাবে কাজ বন্ধ না করা হলে তারা গুরুতর বিপদে

পড়তে পারে। বাইরে থেকে তাদের নিয়ন্ত্রণের পদ্ধতিটি সফল হয়ে গেলে এগুলি আরও ভাল উপায়ে

ব্যবহার করা যেতে পারে। এই পদ্ধতির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হ’ল এই একটি পদ্ধতি দ্বারা কেবলমাত্র দেহের

কোনও নির্দিষ্ট দেহের উন্নতি করার নির্দেশনা দিয়ে নিউরন পাঠানো যেতে পারে। যারা সহজে তাদের

লক্ষ্যে পৌঁছে যাওয়ার পরে তাদের কাজ শেষ করতে পারে।


 

Spread the love

One Comment

  1. […] জেনেটিক পদ্ধতির পরিবর্তিত নিউরন বিকল… মানুষের অভ্যন্তরীণ অঙ্গগুলি মেরামত করার নতুন উদ্যোগ মানবদেহের ত্রুটিগুলি সংশোধন করার নতুন প্রচেষ্টা অভ্যন্তরীণ অঙ্গ প্রতিস্থাপনও ত্রাণ … […]

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: Content is protected !!