Press "Enter" to skip to content

করোনা পজিটিভ যুবকরা লোকেদের আলুচপ, ঘুঘনি আর মুড়ি খাইয়েছে

  • শহরের মুখ্য এলাকা ফৌয়ারা চকে সমস্ত ঠেলা লাগিয়েছিলো

  • বাইরে থেকে ফেরার পর বাড়ি কোয়ারান্টিনে ছিল না

  • কয়েকশ লোক চ্যাপ, ঘুঘনি ও মুড়ি খেয়েছিল

প্রতিনিধি

মালদা: করোনা পজিটিভ যুবকদের বহাল তবিয়তে নিজেদের ঠেলা লাগিয়ে দোকান

চালাচ্ছিলো। তাঁদের দেখে কারুর কোন সন্দেহ হয় না। সেথানে প্রচুর লোক তাদের ঠেলা থেকে

আলুর চাপ, ঘুঘনি এবং মুড়ির চানাচুর কিনে খেয়েছে। হঠাৎ স্বাস্থ্য বিভাগ এবং পুলিশ আসার

পরে সেখানে সস্তায় যারা খেয়েছিলেন, তাদের মাথায় হাত। করোনা পজিটিভ যুবকদের নিজের

হাতে সমস্ত জিনিষ তৈরি করতেও তারা দেখেছে। এখন তারা চিন্তায় আছেন যে এই খাবার

খাবার চক্করে তারা করোনা পজিটিভ হয়ে পড়েন নি তো। জনতার দ্বারা জিজ্ঞাসা করা হলে,

স্বাস্থ্য বিভাগের অফিসাররা জানালেন যে এই সব যুবক করোনা পজিটিভ। তাই তাদের জোর

করে করোনা মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নিয়ম অনুসারে, তাদের নিজেই চলে যাওয়া

উচিত ছিলো। এখন নিয়ম না মেনে চলার কারণে তাদের চিকিত্সার পাশাপাশি মামলা করা

হবে। এই ঘটনার পরে, এলাকার ফুটপাথের সমস্ত ঠেলা ব্যাবসায়ী তাদের নিজস্ব ঠেলা নিয়ে

পালিয়ে গেছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের স্থানীয় কর্তৃপক্ষের মতে, চলমান তদন্তে মালদা শহরে 47

জন নতুন করোনার রোগী পাওয়া গেছে। এর মধ্যে শহরের দশ জন লোক রয়েছে। এর

পাশাপাশি মহিলাদের মধ্যে এই সংক্রমণও কিছুটা বাড়তে দেখা যায়। এখন পর্যন্ত পুরো জেলায়

সংক্রামিত করোনার সংখ্যা পাঁচশ ছাড়িয়েছে।

করোনা পজিটিভ যুবকরা বিধি লঙ্ঘন করেছে

পুলিশ জানিয়েছে, শহরের বালুচর এলাকায় চারজন সংক্রামিত হয়েছে বলে জানা গেছে। এর

মধ্যে তিন জনই এখানে ঠেলা লাগিয়েছিলো। বাইরে থেকে ফিরে আসা অভিবাসী শ্রমিকরা

উপার্জনের জন্য নিজস্ব চুক্তি শুরু করেছিলেন। বাড়ির কোয়ারান্টিনে না থেকে তারা নিয়ম

লঙ্ঘন করে ব্যবসায়ে জড়িয়ে পড়েন। সুতরাং, এই লোকগুলির মাধ্যমে, কত লোক সংক্রামিত

হয়েছে, তাদের তথ্য কেবলমাত্র এই ধরনের লোকদের তদন্তের মাধ্যমেই জানা যাবে।

সেখানকার অনেক লোক এই ঠেলা গুলি থেকে কিছু না কিছূ খেয়েছেন। তাদের কেউ কেউ

নিজের তদন্তে এগিয়ে এসেছেন। পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেছেন যে লোকেরা

কঠোরভাবে নিয়ম মেনে চলার কারণে আবার কঠোরতা দেখা দেবে হয়। যাদের মাস্ক ছাড়া

দেখা যায় তারাও ধরা পড়ছে কারণ বর্তমানে কেবল মাস্ক পরা বের হওয়ার নিয়ম প্রযোজ্য।


 

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
More from খাদ্যMore posts in খাদ্য »
More from স্বাস্থ্যMore posts in স্বাস্থ্য »

One Comment

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!