My title page contents Press "Enter" to skip to content

বাবা বর্ফানির দর্শন পাবার জন্য এখনো পর্যন্ত ১.৫৮ লক্ষ ভক্ত পৌঁছেছেন অমরনাথে




শ্রীনগরঃ বাবা বর্ফানির দর্শন পাবার জন্য এখনো পর্যন্ত ১.৫৮ লক্ষ ভক্ত অমরনাথে পৌঁছেছেন।

জম্মু কাশ্মীরের অমরনাথ যাত্রায় এখনো পর্যন্ত সব থেকে বেশি যাত্রী হিমালয়ের পবিত্র অমরনাথ গুহায় বাবা বর্ফানির দর্শন পেয়েছেন।

মন্দিরের আধিকারিক মুখপাত্র জানিয়েছেন যে ১লা জুলাই থেকে পবিত্র অমরনাথ তীর্থ যাত্রা শুরু হয়েছে।

এবং এখনো পর্যন্ত ১.৫৮ লক্ষ ভক্ত পবিত্র শিবলিঙ্গের দর্শন করেছেন।

অমরনাথ যাত্রা সমাপন ১৫ ই আগস্ট শ্রাবণ পূর্ণিমার দিন হবে।

তিনি জানিয়েছেন যে পারম্পরিক এবং বালটাল এই দুটি রাস্তা দিয়েই যাত্রীরা অমরনাথ গুহার দিকে চলেছেন।

এই তীর্থযাত্রা ভালোভাবেই চলছে।  সকাল থেকে সন্ধ্যে পর্যন্ত এক দিনে প্রায় ৬০০০ তীর্থযাত্রী পবিত্র শিবলিঙ্গের দর্শন করেন।

শুক্রবার রাতে যাঁরা ক্যাম্পে পৌঁছেছেন, তাঁরা রাতে বিশ্রাম করার পর শনিবার সকালে অমরনাথ গুহার দিকে রওনা হয়ে গেছেন।

শহীদ দিবসের পরে সেখানে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল ও তারপর সন্ত্রাসবাদীদের আহুত হরতালকে মাথায় রেখে জম্মুর ভগবতী নগরে অবস্থিত যাত্রী নিবাস আধার শিবির থেকে শনিবার অমরনাথ যাত্রা স্থগিত করে দেওয়া
হয়েছিল।

এর ফলে তীর্থযাত্রীরা সেখানে আটকে পড়েন।

পুলিশ সূত্র জানিয়েছে যে শহীদ দিবস কে নজরে রেখে পার্বত্য এলাকায় বাধা নিষেধ আরোপ করার ফলে সুরক্ষার
দৃষ্টিতে এই যাত্রা স্থগিত করে দেওয়া হয়েছিল।

তিনি জানিয়েছেন যে উচ্চ আধিকারিকদের পক্ষ থেকে নির্দেশ আসার পরেই কোন নতুন দলকে অমরনাথে
উদ্দেশ্যে যাত্রা করার অনুমতি দেওয়া হবে।

শুক্রবার এখানকার আধার শিবির থেকে ৫৩৯৫ জন তীর্থযাত্রী কাশ্মীরের অমরনাথ গুহা পরিদর্শনের জন্য রওনা হয়েছেন।

যাত্রা শুরু হবার পর থেকে এখনো পর্যন্ত জম্মু থেকে ৫৮,৪২৭ জন রেজিস্টার্ড তীর্থযাত্রী অমরনাথের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।

সুরক্ষার খাতিরে দুবার যাত্রা স্থগিত করা হয়েছে

জম্মু কাশ্মীরের সন্ত্রাসবাদীদের দ্বারা আহূত হরতালের কারণে জম্মু থেকে দ্বিতীয় বার তীর্থ যাত্রা স্থগিত করা
হয়েছিল।

এর আগে ৮ জুলাই সন্ত্রাসবাদীদের ডাক হরতালের জন্য প্রতিরক্ষার কারণে জম্মু থেকে যাত্রা
স্থগিত রাখা হয়েছিল।

যাত্রা আধিকারিক জানিয়েছেন যে, শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ১৩০০৪ জন শ্রদ্ধালু বাবা বর্ফানিকে দর্শন করেছেন।

শুক্রবার রাত পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা মহিলা, শিশু এবং সাধুসন্ত সমেত ১,৫৭,০৬২ জন যাত্রী বাবার দর্শন করেছেন।

এর মধ্যেই সাধু-সন্ত এবং সন্ন্যাসিনীদের সঙ্গে সাধারণ যাত্রী এবং ভক্তের একটি নতুন দল ভগবতী নগর থেকে

মধ্য কাশ্মীরের গন্দেরবল জেলায় অবস্থিত বালটাল এবং অনন্ত নাগের নুনবান পহলগাঁও এ অবস্থিত আধার শিবিরের  জন্য আলাদা আলাদা রাস্তা দিয়ে রওনা হয়ে গেছেন।

বাবা বর্ফানির দর্শন পথে হর হর মহাদেও আর বম বম ভোলে শোনা যাচ্ছে

‘হর হর মহাদেও’ এবং ‘বোম বোম ভোলে’ শ্লোগান দিতে দিতে তীর্থযাত্রীর দল আধার শিবির থেকে শেষ বাস স্ট্যান্ড
চন্দনওয়াড়ীর জন্য রওনা হয়ে গেছেন।

এই এলাকা থেকে তাঁদের গাড়ী ছেড়ে দিতে হবে ও সেখান থেকে হেঁটে অমরনাথ পর্যন্ত পৌঁছাতে হবে।

বালটাল আধার শিবির থেকে একটি নতুন দল আজ ভোরে রওনা হয়েছেন।

মুখপাত্রটি জানিয়েছেন যে মহিলা, শিশু ও সাধু-সন্তদের নিয়ে তীর্থযাত্রীদের এই দলটি হেঁটে পবিত্র গুহায় পৌঁছোবে।

এর মাঝেই বহু আগে থেকেই চলে আসা ‘ভূমি পূজা’, ‘নবগ্রহ পূজা’ ও ‘ধ্বজারোহণ’ অনুষ্ঠান এখানে সময়মতোই হবে।

উল্লেখ্য যে প্রতি বছর আষাঢ়ে পূর্ণিমার দিন এখানে এই সমস্ত অনুষ্ঠান হয়ে থাকে।

শিব পূজার সাথে সম্পর্কিত বার্ষিক অনুষ্টান ‘ছড়ি মোবারক’ ১৬ই জুলাই অনুষ্ঠিত হবে।

এর জন্য সমস্ত আয়োজন করা হয়ে গেছে। এর মাঝে হেলিকপ্টার পরিষেবা অন্যান্য দিনের মতোই চলছে।

মুখপাত্রটি জানিয়েছেন যে বহু সংখ্যক যাত্রী, এমনকি যাঁরা পহেলগাঁও এর রাস্তা দিয়ে অমরনাথ গিয়েছিলেন
তাঁরাও বালটালের রাস্তা দিয়েই ফিরে আসছেন।

বাবার দর্শন করার পর অধিকাংশ তীর্থযাত্রী তাঁদের বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে গেছেন।

কোন কোন তীর্থযাত্রীর দল বাড়ি ফেরার আগে গুলমার্গ এবং এবং অন্যান্য পর্যটন স্থল ঘুরে নিচ্ছেন।




Spread the love

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Mission News Theme by Compete Themes.