Press "Enter" to skip to content

আবার নৌকাডুবি মালদায় ঘটনায় এখনো পর্যন্ত মৃত তিন

মালদাঃ আবার নৌকাডুবি মালদায় । মালদার চাঁচলের পর এবারে কালিয়াচক । নৌকা ডুবির ঘটনায় এখনো পর্যন্ত মৃত তিন । ঘটনায় শোকের ছায়া

কালিয়াচক তিন নম্বর ব্লকের কৃষ্ণ পুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ভুবন মন্ডল পাড়া

এলাকায়।

এদিকে এই ঘটনার পর কালিয়াচকের চকবাহাদুর পুর এলাকার গঙ্গা নদীর ঘাটে

পৌঁছায় দুর্যোগ মোকাবিলা দপ্তরের কর্মীরা।

পাশাপাশি এলাকায় মোতায়েন রয়েছে বৈষ্ণবনগর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী।

প্রশাসনের তরফে জানাগেছে,।ইতিমধ্যে নৌকাডুবিতে তিনজন মারা গিয়েছেন।

দশজনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

তবে এখনো কেউ বেশ নিখোঁজ রয়েছে কিনা তা জানার জন্য।দুর্যোগ মোকাবিলা দপ্তরের ডুবুরি নামানো হয়েছে গঙ্গা নদীতে।।

নদীতে খোঁজ চালানো হচ্ছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে , মঙ্গলবার রাত সাতটা নাগাদ বৈষ্ণবনগর থানার ভুবন

মন্ডল গ্রাম থেকে ১২ থেকে ১৫ জন গ্রামবাসী দুর্গা প্রতিমা দেখার জন্য নৌকা করে

সচিত্র মন্ডল পাড়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেয় তারা ।

ওই সময় গঙ্গা নদীতে হঠাৎই নৌকা উল্টে যায়।ছোটো নৌকায় অতিরিক্ত

যাত্রী থাকার ফলে নৌকাডুবির ঘটনাটি ঘটেছে বলে স্থানীয় গ্রামবাসীদের অভিযোগ।

কয়েকজন যাত্রী শুধু সাঁতরে কোনরকমে প্রাণে বেঁচেছেন।

বাকি তিন জনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

মৃতদের মধ্যে একই পরিবারের দুই ভাইবোন দেবরাজ মন্ডল (৬)

জুলি মন্ডল (৯) ওপর শিশুর নাম প্রেম কুমার মন্ডল (১২)।

গ্রামবাসীরা জানান,ছোট নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী থাকায় এই ঘটনা।

বর্ষার মরশুমে গঙ্গা নদী অনেকটাই বিস্তীর্ণ রয়েছে।

এই অবস্থায় মাঝ নদীতে গিয়ে ওই নৌকাটি টালমাটাল খেয়ে উল্টে যায় ।

কয়েকজন শিশু মহিলারা ওই নৌকায় ছিল।

প্রত্যেকে গ্রাম থেকে দুর্গা প্রতিমা দেখতে যাচ্ছিলাম।।

আবার নৌকা ডোবার কারণ বেশি যাত্রী বোঝাই করা

মুহুর্তের মধ্যে সব ওলটপালট হয়ে যায়। কোনরকমে সাঁতরে ঘাটে উঠে অনেকেই।

যদিও এই ঘটনার জন্য প্রশাসনকেই দায়ী করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

আবার নৌকাডুবি দুর্ঘটনাগ্রস্ত পরিবারদের ক্ষতিপূরনেরও দাবি তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

বার বার এই ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যাবার পরেও বেশি যাত্রী নিয়ে নৌকা ছাড়ার সম্পর্ক এবার সাবধান করা হয়েছে লোকেদের।

বর্ষা কালে নদীর জল এখন খুব বেশী। তাই সব নদিতেই জলের স্রোতও খূব বেশি।

এর কিছূ দিন আগেই মহানন্দার একটি বড় নৌকা দুর্ঘটনা ঘটে যাবার পরেও কেন লোকেরা বা নৌকা চালক সাবধান হয় নি, সেটাও জানার চেষ্টা চলছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  

2 Comments

Leave a Reply

Mission News Theme by Compete Themes.
error: Content is protected !!