Press "Enter" to skip to content

নিজের তৃতীয় স্ত্রীকে হত্যা করে পালিয়ে গেছে বিরসা ওরাঁও

বেড়োঃ নিজের তৃতীয় স্ত্রীকে হত্যা করার পরে জামটোলির বিরসা ওরাঁও পালিয়ে গেছে।

ঘটনাটি ঘটে যাবার পরে জানা গেছে যে তার আগের দুই স্ত্রী এই মারধোর করার জন্যেই তাকে ছেড়ে চলে গিয়েছিলো।

এই ব্যাপারেও সেই মারধোর করার মাঝে মারা গেছে তার স্ত্রী।

পাড়া পড়শিরা পুলিসের কাছে অভিযোগ করেছেন যে বিরসার আগে থেকেই এই ধরনের মারধোর করার বদ অভ্যাস ছিলো।

বেশি মারধোর করার জন্যেই তার আগের দুই স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে গিয়েছিলো।

এখন সে তার নিজের তৃতীয় স্ত্রী সীতা ওরাঁওয়ের সাথে থাকতো।

নিজের তৃতীয় স্ত্রীকে হত্যা করার আগের ঘটনা সম্পর্ক জানা গেছে যে এবার যে নারী খুন হয়েছেন, তার প্রথম স্বামী গন্দুরা ওরাঁও মারা গিয়েছিলো।

স্বামীর মৃত্যুর হবার পরে সে একা থাকা বিরসার সাথে বিয়ে করে থাকা শুরু করে।

আজকে দুপুর প্রায় দুটোর সময় আবার কোন কারণে বিরসা নিজের স্ত্রীকে মারধোর করা শুরু করে।

এই মারধোর করার মধ্যেই তার স্ত্রী প্রাণ হারায়।

স্থানীয় লোকেরা সেখানের মুখিয়া সুনীল কচ্ছপকে ব্যাপারটি জানায়।

মুখিয়ার থেকে এই খবর পুলিসের কাছে আসে।

নিজের তৃতীয় স্ত্রী কে মারার কেস লিখেছে পুলিস তার বিরুদ্ধে

এই খবর পাবার পরে বেড়ো থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যাম বিহারী মাঝি সশস্ত্র বাহিনী নিয়ে জামটোলির ঘটনাস্থলে আসেন।

সেখানে পুলিসের কাজ সম্পর্ণ করার পরে পুলিস এই লাশকে বেড়ো থানায় নিয়ে আসে।

এই ঘটনার পর প্রাপ্ত তথ্য মতে, বোকো টিকরার বাসিন্দা বিরসা ওরাওঁও অতীতে দুটি বিয়ে করেছিলেন,

নিহত সীতা ওরাওন বীরসা ওরাওনের তৃতীয় স্ত্রী ছিলেন।

প্রতিবেশী ও গ্রামবাসীরা জানায় যে বিরসা ওরাওঁ লাপুংয়ের এক মহিলার সাথে প্রথম বিয়ে করেছিলো।

সেই বিয়ে থেকে তিন সন্তান রয়েছে, অপরটি তারো গ্রামে বিবাহিত ছিল।

বীরসা ওরাওন তার বাড়ির মারধরের কারণে তারা দুজনেই বাড়ি ছেড়ে যায়।

এর পরে, বিরসা ওরাওঁ জামতলী গ্রামের গন্দুরা ওরাঁওয়ের মৃত্যুর পরে তার স্ত্রী সীতাকে স্ত্রী হিসাবে রেখেছিলেন।

পুলিশ মামলাটি তদন্ত করছে। বীরসা ওরাওন হত্যার অভিযোগে পালিয়ে যায়।

হত্যার মামলা দায়েরে করার পর পুলিশ পলাতক আসামির সন্ধান শুরু করেছে।

তবে এই ঘটনায় সবাই প্রথম থেকেই মনে করেন যে আসলে বিরসা আগে থেকেই এই ধরনের হিংস্র মনোভাব নিয়ে থাকতো

Spread the love

2 Comments

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.