বিজেপির সাথে মিত্রতা নিয়ে সিদ্ধান্তের জন্য নয় সদস্যের কমিটি গঠন করল অগপ

AGP meeting
Spread the love
  • পঞ্চায়েত নির্বাচনে একা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় অগপর সাথে বিজেপির দূরত্ব বেড়েছে, মন্তব্য হিমন্ত বিশ্ব শর্মার
সব্যসাচী শর্মা
গুয়াহাটি – আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মিত্রতা সম্পর্কে এখনো কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি অসম গণ পরিষদ ।
এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য সভাপতি অতুল বরার নেতৃত্বে নয় সদস্যের কমিটি গঠন করে দিয়েছে দলটি ।
আসন্ন লোকসভা ভোটে যে কোনো ধরনের মিত্রতা সম্পর্কে এই কমিটি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে ।
তবে অসম গণ পরিষদের সঙ্গে মিত্রতার ক্ষেত্রে সম্পর্কের মধ্যে ফাটল ধরেছে বলে স্বীকার করে নিয়েছেন মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা ।
পঞ্চায়েত নির্বাচনে অসম গণ পরিষদ একা প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার ফলেই দুটি দলের মধ্যে
দূরত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি ।

বিজেপির প্রতি মোহ ছাড়তে পারেনি অগপ

প্রসঙ্গতঃ, জনসমক্ষে সরাসরি বলতে না পারলেও বিজেপির প্রতি মোহ এখনও ছাড়তে পারেনি অসম গণ পরিষদ ।
আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপির সঙ্গে মিত্রতার সম্পর্ক ভেঙ্গে দিলেও অগপ আজও
গেরুয়া দলটির থেকে সম্পূর্ণ পৃথক হতে পারেনি ।
অগপ নেতাদের বক্তব্য এবং দলটির সামগ্রিক গতিবিধি দেখলে মনে হয় যে মানসিক দিক দিয়ে
যেন এখনো বিজেপির  সঙ্গে অসম গণ পরিষদের মিত্রতা অব্যাহত রয়েছে ।
ফলে স্বাভাবিকভাবেই মিত্রতার ক্ষেত্রে আজও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না অসম গণ পরিষদের নেতৃত্ব ।
উল্লেখ্য বিজেপির সঙ্গে সরকারে থেকেও রাজ্যে অনুষ্ঠিত পঞ্চায়েত ভোটে একাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল অসম গণ পরিষদ ।
এর পর নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল প্রসঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপির সঙ্গে মিত্রতা ত্যাগ করার পাশাপাশি
অগপর তিন জন মন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন ।
মহানগরের মুখ্য কার্যালয়ে আয়োজিত অসম গণ পরিষদের কর্ণধার সমিতির বৈঠকে
আসন্ন লোকসভা ভোটে  মিত্রতা সর্ম্পকে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে ।
তবে লোকসভা নির্বাচনে মিত্রতা নিয়ে এখনও অনিশ্চয়তায়় রয়েছে আঞ্চলিক দলটি ।
পঞ্চায়েত নির্বাচনের মতো এই ভোটেও অসম গণ পরিষদ একাই প্রতিদ্বন্দিতা করতে পারে বলে
মন্তব্য করেছেন দলীয় নেতা তথা বিধায়ক সত্যব্রত কলিতা ।
কিন্তু কর্ণধার সমিতির বৈঠকে আলোচনা হলেও মিত্রতা নিয়ে এখনো পুরোপুরি সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি অসম গণ পরিষদ ।
এই মুহূর্তে দলটি একাই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করার পক্ষে রয়েছে বলে জানা গেছে ।
এদিকে বিধায়ক রমেন্দ্র নারায়ান কলিতা বলেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরোধিতা করে যাবে অসম গণ পরিষদ ।
মিত্রতার ক্ষেত্রে অগপর নাম একবার কংগ্রেসের সঙ্গে আবার কখনো বিজেপির সঙ্গে জড়ানো হচ্ছে ।
এতে এটাই  প্রমাণিত হচ্ছে যে বর্তমান পরিস্থিতিতেও অগপর প্ৰাসংগিকতা রয়েছে ।
তবে লখিমপুরে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের মন্তব্য দুর্ভাগ্যজনক বলে
আখ্যা দিয়েছেন বিধায়ক রমেন্দ্র নারায়ণ কলিতা ।

নির্বাচন ণকৌশল প্রস্তুতি সমিতি নেবে সিদ্ধান্ত

আসন্ন লোকসভা ভোটে  মিত্রতা সহ অন্যান্য বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য লোকসভা নির্বাচন রণকৌশল প্রস্তুত সমিতি
নামে একটি কমিটি গঠন করেছে অসম গণ পরিষদ ।
সভাপতি অতুল বরার নেতৃত্বে গঠিত কমিটিতে সদস্য হিসাবে রয়েছেন বিধায়ক কেশব মহান্ত,
প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিধায়ক প্ৰফুল্ল কুমার মহন্ত, বিধায়ক বৃন্দাবন গোস্বামী, বিধায়ক ফণীভূষণ চৌধুরী,
প্রাক্তন মন্ত্রী কমলা কলিতা, প্রাক্তন সাংসদ বীরেন্দ্র প্ৰসাদ বৈশ্য, বিধায়ক রমেন্দ্র নারায়ন  কলিতা এবং বিধায়ক প্রদীপ হাজারিকা ।
তাছাড়া আসন্ন লোকসভা ভোটের প্রতি লক্ষ্য রেখে প্রচার কমিটি এবং ইশতেহার কমিটিও গঠন করা হয়েছে ।
মনোজ শইকীয়াকে প্রচার সমিতির আহ্বায়কের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ।
একইভাবে ইশতেহার কমিটির আহ্বায়কের দায়িত্ব পেয়েছেন বিধায়ক পবীন্দ্ৰ ডেকা ।
অন্য দিকে মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল প্রসঙ্গে
বিজেপি আগে থেকেই অসম গণ পরিষদের স্থিতি টের পেয়েছিল ।
অগপ মিত্রতা ভঙ্গ করার পর দুটি দলের মধ্যে পার্থক্য বৃদ্ধি পেয়েছে ।
তিনি বলেন, অগপর সাথে বিজেপির মিত্রতা হবে কিনা সেটা দল ঠিক করবে ।
দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এবং রাজ্য বিজেপি সভাপতি রঞ্জিত দাস
যেই সিদ্ধান্ত নেবেন, সেটাই বিজেপি এখানে পালন করবে বলে মন্তব্য করেছেন মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা ।

Author: Bangla R khabar

Loading...