Press "Enter" to skip to content

রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলিপ বললেন মমতার ওনেক দেরিতে বোধোদয় হয়েছে

Spread the love



কলকাতা (এজেন্সী)- বড় দেরিতে বোধোদয মমতার, মুখ্যমন্ত্রীর ‘আদরের কেষ্ট’কে নিযে সমালোচনায দিলীপ। তিনি অনুব্রতের কথা নিয়ে এই কথা বলেছেন। ‘প্রধানমন্ত্রীর জিভ টেনে ছিঁড়ে নেবেন বলে হুমকি দিয়েছিলেন তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল|
তখনও মুখে রা করেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায| এতদিন পর বোধোদয হল আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর| তাঁর মনে হল হিংসাত্মক কথা বলা উচিত নয| কিন্তু কেন এমন মনে হল তাঁর’, প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ|
বর্ধমানের কাঁকসার জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায কড়া ভাষায হুঁশিযারি দিযেিলেন তাঁর আদরের অনুব্রতকে| বলেছিলেন, ‘কেষ্ট, আমি লাস্টবার তোমাকে সতর্ক করে দিচ্ছি| ওই ধরনের কথা আমি বরদাস্ত করব না|’ তারপরই অনুব্রত মণ্ডল নরম হয়েছেন| দিদির কথা শিরোধার্যু করেছেন|

 রাজ্য বিজেপির তরফে অনেক দেরিতে এলো প্রতিক্রিয়া

দিলীপবাৱুর কথায, ‘বড্ড দেরি করে মুখ্যমন্ত্রী সবক শেখালেন তাঁর আদরের কেষ্টকে| আরও আগে নেত্রীর সতর্ক হওযা উচিত ছিল|’ ৱুধবার ঝাড়গ্রামে দলীয সভার ফাঁকে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনা করে বলেন, ‘দু“বছর ধরে বাজে হকে চলেছেন|
মুখ্যমন্ত্রী চুপচাপ তা সহ্য করে গিয়েছেন| আজ তিনি ধমক দিয়েছেন, তার পিছনে নিশ্চযই কোনও উদ্দেশ্য রয়েছে| মুখ্যমন্ত্রী এতদিন পরে ৱুঝেছেন, তৃণমূলের হিংসার রাজনীতি ভালোভাবে নিচ্ছে না|’ দিলীপবাৱু বলেন, ‘বিজেপি স্বচ্ছ রাজনীতিতে বিশ্বাসী|
বিজেপি বাংলায সেই স্বচ্ছ রাজনীতিই করছে| আর তার পাশে তৃণমূলের হিংসার রাজনীতি ফিকে হতে শুরু করেছে| মানুষ আর ওসব ভালো চোখে দেখছে না| তাই মুখ্যমন্ত্রী অনুব্রতকে ধমকে সোজা পথে আনতে চাইছেন তিনি|’এদিন কেরলে যুবকের মৃতু্যতে তৃণমূলের নীরব থাকার সমালোচনা করেন দিলীপ ঘোষ| খোঁচা দেন ৫০ হাজার টাকায চা দোকান ও তেলেভাজা শিল্প নিযে|

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.