ঝাড়খন্ডের যুবকরা পরিশ্রমী, নিজের যোগ্যতায দুনিয়ায নাম করতে পারেন – রঘুবর দাস

0 92
রাঁচি (সং)- মুখ্যমন্ত্রী শ্রী রঘুবর দাসের কথায ঝাড়খণ্ডের যুবকেরা সহজ সরল এবং পরিশ্রমী মানুষ। তাদের হাতে য়ে যোগ্যতা আছে সেটি সারা দুনিযাতে নিজের নাম উজ্জ্বল করতে পারে। আর সেদিকেই খেযাল রেখে রাজ্য সরকার কৌশল উন্নযনকে প্রাধান্য দেওযার জন্য এটির বাজেট পাঁচ গুন বৃদ্ধি করে সাতশো কোটি অর্থের অধিক করা হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর দ্বারা দেশে প্রথমবারে কৌশল উন্নযন মন্ত্রকের গঠন হয়েছে। যুবকের যোগ্যে পরিনত করার উদ্দেশ্যতে ঝাড়খণ্ড রাজ্য অগ্রনী ভুমিকা পালন করছে। তিনি আজ এমপ্ল্যার্স কনক্লেভের উদ্বোধন করার পরে মানুষজনকে সম্বন্ধিত করছিলেন।
মুখ্যমন্ত্রী শ্রী দাস বললেন রাজ্যতে শীঘ্রই স্কিল পলিসি প্রস্তুত করা হবে। এক্ষেত্রে বিনিযোগকারীদের জমি উপলব্ধের ক্ষেত্রে ছাড় মিলবে। কলেজ ক্যাম্পাসে ১০ বর্ষের জন্য লিজে জমি দেওযা হবে। এছাড়া অগ্রিম রাশিও দেওযা হবে। কোম্পানিদের সাথে দীর্ঘ সময়ে জন্য মৌ স্বাক্ষরিত হবে। এছাড়া সিঙ্গাপুরের কোম্পানির আই০ টি০ আই০ সাহায্যের ক্ষেত্রে বিশ্ব মানের কৌশল উন্নযন কেন্দ্র হবে খোলা। এক্ষেত্রে ব্যয়ে পরিমান ষাট কোটি।
এখান থেকে তৈরি হওযা বাচ্চারা আন্তর্জাতিক স্তরে নিজের পরিচয পাবে। সিমেন্সের সাহায্যে সেন্টার অফ এক্সিলেন্সের স্থাপনা হয়েছে। এখান থেকে প্রশিক্ষিত মানুষেরা দুবাই ও মধ্য থেকে পুর্ব এশিযাতে চাকুরী পাবে। ভারত থেকে আগামী তিন বর্ষে পাঁচ লক্ষ প্রশিক্ষিত মানুষ জাপান যাবেন। যার মধ্যে ঝাড়খণ্ড রাজ্য সবথেকে আগে থাকবে।
ফলস্বরুপ এখানের বাচ্চারা ভালো চাকরি পাবে। ইংরেজি আর জাপানী ভাষার গুরুত্ব দেখে এই বিষয়ে পদক্ষেপ নেওযা হচ্ছে। কৌশল বিকাশ কেন্দ্রগুলিতে ছাত্রদের ১৫০ ঘন্টার স্পোকেন ইংলিশের কোর্স করানো হচ্ছে। রাঁচি বিশ্ববিদ্যালয়ে জাপানী ভাষার কক্ষ আরম্ভের প্রযাস চলছে।

ঝারখন্ডের প্রতি পরিবার থেকে একজন কে প্রশিক্ষিত করা হবে

মুখ্যমন্ত্রী বললেন রাজ্য সরকার প্রত্যেক গরীব পরিবারের থেকে কমপক্ষে একজন সদস্যকে প্রশিক্ষিত করে রোজগার অথবা স্বনির্ভর গড়ে তুলবে। এরফলে পলাযনের কলঙ্ক থেকেও ঝাড়খণ্ড রাজ্য মুক্ত হবে। তিনি জানালেন ঝাড়খণ্ডে উত্কৃষ্ট মানের সব পলিসি প্রস্তুত হয়েছে। তাঁর মতে মানব সম্পদের উন্নতির থেকেই রাজ্যের উন্নযন ফিরে আসবে।
কার্যক্রমে শিক্ষা মন্ত্রী শ্রীমতী নীরা যাদব বললেন রাজ্যের বিনিযোগ সন্মেলন করার লাভ এখানের মানুষজন পেয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী শ্রী রঘুবর দাস রাজ্যকে দ্রুত গতিতে উন্নযনের পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। সরকার যুবকদের ডিগ্রী দেওযার সাথে সাথে যোগ্যে পরিনত করছে। যার ফল চোখের সামনেই আছে।
মুখ্য সচিব শ্রীমতী রাজবালা বর্মা জানালেন রাজ্যতে বড় সংখ্যায মানুষজন রাষ্ট্রীয ও আন্তর্জাতিক স্তরে চাকরি পেয়েছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিনিযোগ হচ্ছে তথা রাজ্যের এক দুটি শহরেই নয বরং বিভিন্ন জেলাতে রোজগারের পথ খুলছে।
কার্যক্রমে নিযুক্ত কম্পানিগুলি ও সার্ভিস প্রোভাইডার নিজেদের বক্তব্য রাখলেন। এখানে উন্নযন কমিশনার শ্রী অমিত খরে, শিল্প সচিব শ্রী সুনীল বর্নবাল, উচ্চ, প্রযুক্তি শিক্ষা ও কৌশল বিকাশ সচিব শ্রী অজয কুমার সিংহ সহ অন্যান্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

You might also like More from author

Comments

Loading...