ঝাড়খণ্ডে মাওবাদী হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর ছয় জওয়ান নিহত ও ৫ জন আহত হয়েছেন  

jharkhandey maowadi hamlay nihata jawan

গাড়োয়া (এজেন্সী) –  ঝাড়খণ্ডে মাওবাদী হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর ছয় জওয়ান নিহত ও ৫ জন আহত হয়েছেন|

মঙ্গলবার মাওবাদী অধ্যুষিত গাড়োয়া জেলায় ভয়াবহ ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণে ঝাড়খণ্ড জাগুয়ার ফোর্সের (জেজেএফ) ওই ছয় জওয়ান নিহত হন|

নিহতদের মৃতদেহ তাঁদের পৈতৃক নিবাসে নিয়ে যাওয়া হয়েছে, সেখানে তাঁদের সম্মান জানানোর পর যথাযোগ্য় মর্যাদার সাথে শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়। অন্য়দিকে আহতদের বিশেষ ভাবে চিকিৎসা চলছে।

রাজ্য পুলিশের ডিআইজি বিপুল শুক্লা বলেন, কিনজো এলাকায় মাওবাদীদের উপস্থিতির খবর জানতে পেরে নিরাপত্তা বাহিনী মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই এলাকায় তল্লাশিতে যায়|

কিন্তু মাওবাদীরা ওই এলাকায় আগে থেকেই ল্যান্ডমাইন পুঁতে রেখেছিল|

নিরাপত্তা বাহিনী সেখানে পৌঁছতেই ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ হয় এবং এসময় মাওবাদীরা এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ করলে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটে|

নিরাপত্তা বাহিনীও পাল্টা গুলিবর্ষণ করে জবাব দেয়|

সংশ্লিষ্ট এলাকায় ঝাড়খণ্ড জাগুয়ার বাহিনীর ১১২ ব্যাটেলিয়ানের জওয়ান এবং ঝাড়খণ্ড জাগুয়ার অ্যাসাল্ট গ্রুপের চল্লিশ জন জওয়ান তল্লাশি অভিযান চালিয়ে ফেরার পথে মাওবাদীরা ওই হামলা চালায়|

তারা নিরাপত্তা বাহিনীর অস্ত্রও লুট করে নিয়ে গেছে|

বিস্ফোরণ এত জোরদার ছিল যে নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানদের নিয়ে যাওয়া গাড়িটিও উড়ে গেছে| যদিও  নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানদের বহনকারী ওই গাড়িটিতে ঠিক কতজন জওয়ান ছিলেন তা এখনো নিশ্চিত নয়|

 

সংশ্লিষ্ট এলাকায় দীর্ঘ আট বছর পরে মাওবাদীরা বড়সড় হামলা চালালো

 

 

ঘটনাস্থলের আশেপাশে ঘন জঙ্গল থাকায় দ্রুত সেখানে অতিরিক্ত বাহিনী পৌঁছানো সম্ভব হয়নি| আহত পাঁচ জওয়ানকে হেলিকপ্টারে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়|

ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাস ওই ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করে নিহত জওয়ানদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন|

তিনি মাওবাদীদের ওই আক্রমণকে কাপুরুষোচিত বলে মন্তব্য করেছেন| তিনি বলেছেন যে রাজ্য সরকার মাওবাদীদের এই আক্রমণে থেমে থাকবে না। রাজ্যকে মাওবাদীদের থেকে মুক্ত করতে রাজ্য সরকার প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

সংশ্লিষ্ট এলাকায় দীর্ঘ আট বছর পরে মাওবাদীরা বড়সড় হামলা চালালো|

এর আগে ২০১০ সালে মাওবাদীরা ওই এলাকায় ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিল মাওবাদীরা। সেই সময় মাওবাদীদের হামলায় তেরো জন জওয়ান নিহত হয়েছিলেন|

Please follow and like us:

Author: Bangla R khabar

Loading...