কারো সাথেই অন্যায়  হতে দেওযা চলবে না – মুখ্যমন্ত্রী, বন্দী দের ব্যাপারে মুখ খুললেন

0 8

রাঁচি (সং) – রাজ্যের বিভিন্ন জেলে আলাদা আলাদা সাজা পাওয়া বন্দী দের ব্যাপারে নিজের মত দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী শ্রী রঘুবর দাসেরত মতে কোন মানুষের সাথেই অন্যায় হতে দেওযা চলেবে না| রাজ্যের আদিবাসী মানুষেরা সোজা সরল স্বভাবের হযে থাকে|

অনেক সময় দেখা গেছে ভাবনার কারনে সেইসব মানুষ অপরাধ  করার পর যারা নিজে থেকেই সমর্পন  করেছে বা ভালো আচরনের জন্য কুড়ি বছরের সাজা কম করে দিযে তাদের ছেড়েও দেওযা উচিত্|

এইসব মানুষদের নতুন করে জীবন আরম্ভ করার সুযোগ দেওযা উচিত্| এই ব্যাবস্থা নিলে জেলে বন্দী কয়েদি দের ভাল আচরন করার মনোবৃত্তি জাগৃত হবে|

মুখ্যমন্ত্রীর মতে সাজা পুরো হযে যাওযা অথবা ফাইন নিযে ছেড়ে দেওযা এমন বন্দীদের বা অপরাধীরা যাদের বিরুদ্ধে অপরাধমুলক কান্ডে সক্রিয়  থাকার অভিযোগ আছে

তাদের আচরনের দিকে প্রশাসন নিশ্চয়ই নজর রাখবে| এই কথাগুলি মুখ্যমন্ত্রী শ্রী রঘুবর দাস ঝাড়খণ্ড মন্ত্রকে রাজ্য সাজা পুনরীক্ষন পর্ষদের বৈঠকের সভাপতিত্বের সমযে জানালেন|

বৈঠকে দূশো তেত্রিশ জন বন্দী দের মুক্তির প্রস্তাব

আজকের এই বৈঠকে দুশো তেত্রিশ জন আজীবন কারাবাসের সাজা প্রাপ্ত বন্দীর মুক্তির প্রস্তাবে পর্ষদ বিচার করবে| এর মধ্যে দুশো একুশ জনকে মুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওযা হয়েছে|

কয়েদিরা গড় হিসাবে ২৩ বর্ষের সাজা সম্পুর্ন করে নিযেে| বাকী বারোটি স্থগিত থাকা মামলা দেখে আগামী বৈঠকে বিস্তারিতভাবে প্রতিবেদনের সাথে পুনরায় সিদ্ধান্ত নেওযা  হয়েছে|

দুশো একুশ জনের মধ্যে একশো চারজন কযেী তফসিলি জাতির এবং তিন জন মহিলা শামিল আছে|

যেসব মানুষকে ছেড়ে দেওযা হয়েছে তার মধ্যে রাঁচির কেন্দ্রীয় কারা থেকে একশো জন,

হাজারীবাগের কেন্দ্রীয় কারা লো. ন.ক. থেকে চুযান্ন জন, দুমকা থেকে চল্লিশ জন,

জামশেদপুরের ঘাঘাডিহ কেন্দ্রীয় কারা থেকে তেইশ জন, মেদীনিনগর পালামুর

কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে দুজন, বোকারোর চাসে মন্ডল কারাগার থেকে একজনকে

এবং খোলা হয়েছে জেল সহ পুনর্বাস ক্যাম্প হাজারীবাগ থেকে একজন আছে|

এই বৈঠকে গৃহ কারা এবং বিপর‌্যয় প্রবন্ধন বিভাগের শ্রী এস কে জি রহাটে,

ডি আই জি শ্রী ডিকে পান্ডে, মুখ্যমন্ত্রীর প্রধান সচিব শ্রী সুনীল বর্নবাল,

এডিজি অনুরাগ গুপ্তা, কারা ডি আই জি শ্রী হর্ষ মঙ্গলা, সচিব, বিধি ছাড়াও অন্যান্য পদকর্তারা উপস্থিত ছিলেন|

You might also like More from author

Comments

Loading...