Press "Enter" to skip to content

আসামে বাংলাভাষী বিতাড়নের উদ্যোগে বিক্ষোভ, সর্বানন্দ সোনওযালের কুশপুত্তলিকা দাহ

Spread the love



কলকাতা (এজেন্সী) – ভারতের আসামে রাজ্য থেকে বাংলাভাষী লোকজনকে বিতাড়নের উদ্যোগ নেওযার প্রতিবাদে কলকাতার আসাম ভবনের সামনে বিক্ষোভ করেছে ‘আমরা বাঙালি’ সংগঠন|

বৃহস্পতিবার সমাবেশে আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওযালের কুশপুত্তলিকা দাহ করে বিক্ষুব্ধ ‘আমরা বাঙালি’র সদস্য ও সমর্থকেরা| তারা স্লোগান তোলে ’হিন্দু মুসলিম জানি না, বাঙালি ছাড়া ৱুঝি না’|

‘আমরা বাঙালি’র সর্বভারতীয সম্পাদক বকুল চন্দ্র রায বিক্ষোভ সমাবেশে বলেছেন, ‘আসাম থেকে বাঙালি বিতাড়নের একটা চক্রান্ত চলছে| আসামের বাঙালিদের কার্যমত রাষ্ট্রহীন দেশহীন করার ষড়যন্ত্র চলছে|

এটা বাঙালিরা মেনে নেবে না| বলা হচ্ছে, ৩১ ডিসেম্বর প্রকাশিত নাগরিক পঞ্জিতে যাদের নাম ওঠেনি, তাদের নাম পরবর্তী সমযে না উঠলে তারা দাবি জানাতে পারবে ট্রাইৱু্যনালে|

আর তারপর বাঙালিদের ঠাঁই হবে ডিটেনশন ক্যাম্পে| এটা মেনে নেওযা যায না| তাই এর বিরুদ্ধে আমাদের দেশব্যাপী আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে| আমাদের দাবি, আসামের একজন বাঙালিকেও নাগরিকত্বহীন করা যাবে না|’
এর আগে সম্প্রতি আমরা বাঙালির কেন্দ্রীয সহসম্পাদক তারাপদ বিশ্বাস বলেন, ‘আসামে বাঙালিরাই ভূমিপুত্র| কিন্তু প্রচার করা হচ্ছে বাঙালিরা বিদেশি|’ তিনি বলেন, ‘ব্রহ্মদেশ থেকে আসা অহোম জনগোষ্ঠী ১২২৮ খ্রিষ্টাব্দ থেকে আসামে বসবাস শুরু করে|

তাদের আসার বহু যুগ আগেই বাঙালি জনগোষ্ঠী আসামে ছিল| আজকের আসামের সংস্কৃতির উত্সকেন্দ্র কামরূপী সংস্কৃতি, যা রাঢ় গাঙ্গেয সভ্যতা“সংস্কৃতির সঙ্গে ব্রহ্মপুত্র সংস্কৃতির মিশ্রিত রূপ| তাই অসমীযদের অস্তিত্ব বিপন্ন হওযার দাবিটি দুর্বোধ্য|

সুদীর্ঘ ৮০০ বছর ধরে অসমিযাদের অস্তিত্ব কোথায, কখন, কোন ক্ষেত্রে, কীভাবে বিপন্ন হযেছে, তা আদৌ স্পষ্ট নয| তাই অসমিযা অস্তিত্ব বিপন্ন হচ্ছে, এমন ধারণা পরিকল্পিতভাবে জাতি বিদ্বেষ প্রচার ছাড়া আর কিছু নয|’
তারাপদ বিশ্বাস বলেন, ‘এত দিন বাঙালির ভোটে সরকার নির্বাচিত হযেছে| আজ তারাই বিদেশি হতে চলেছে, এটা মেনে নেওযা যায না, যাবে না| তাই আমরা বাঙালি সংগঠন লাগাতার আন্দোলনের ডাক দিযেছি|’

পশ্চিমবঙ্গের পাশের রাজ্য আসামে সম্প্রতি প্রকাশ করা হয আসামের রাষ্ট্রীয নাগরিক পঞ্জির খসড়া| এতে উঠে এসেছে ১ কোটি ৯০ লাখ মানুষের নাম| যদিও আসামে নাগরিক পঞ্জির রাজ্য সমন্বযক প্রতীক হাজেলা সুপ্রিম কোর্টে আগেই জানিযেছিলেন, দুই কোটি নাগরিকের আবেদনপত্রের যাচাই“বাছাই সম্পন্ন করা হযেছে|

৩৮ লাখ মানুষের নথিপত্রে সামান্য ত্রুটি থাকার কারণে পুনঃপরীক্ষার ব্যবস্থা নেওযা হযেছে|
এই নথি পেশের পর তালিকা প্রকাশ করা হযেছে ১ কোটি ৯০ লাখ মানুষের| তাই এই খসড়া প্রকাশের পর তীব্র ক্ষোভ ছড়িযে পড়ে নওগাঁসহ বরাক উপত্যকার বাঙালিদের মধ্যে|

দেখা যায, বহু বাঙালির নাম ওঠেনি| বাদ পড়ে যাওযা ব্যক্তিরা অভিযোগ তুলেছেন, বাঙালিদের আসাম থেকে বিতাড়নের পাঁযতারা চলছে|



Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Mission News Theme by Compete Themes.