Press "Enter" to skip to content

সৌদি আরবের নিয়মগুলি সংস্কারের ফলে অকারণ সাবাশী নেবার চেষ্টা করছেন মোদি-শকিল

Spread the love



নয়াদিল্লি: সিনিয়র কংগ্রেস নেতা শাকিল আহমেদ বলেছেন যে হজে যাবার নিয়ম সম্পর্কে অকারণ নিজেকে শাবাসী দিচ্ছেন নরেন্দ্র মোদি। মুসলিম নারীদের একা হজ করার ব্যাপারে আসল ডিসিশন তো সৌদি সরকার করেছে। তাদের ওখানে আগে এর নিষেধ ছিলো। এখন সেই নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে নিলে সব মহিলা একাই হজ করতে যেতে পারেন।
এটাতে তো ভারতের কিছূ করার ছিলো না। তাই মোদি অকারণ এই ব্যাপারে নিজের পীঠ ঠুকছেন। উনি বলেন যে মোদির এই অনুষ্ঠানটিতে “মন কী বাত” রবিবার রেডিও সম্প্রচারের দাবি জানানো হয়েছে যে তিনি হজকে মুসলিম নারীদেরকে একা পাঠাতে রায় পরিবর্তন করেছেন।
কংগ্রেস নেতা বলেন, মোদী এই ক্রেডিট গ্রহণ করে তার সমর্থকদের বিভ্রান্ত করছেন। সৌদি আরব সরকার নিয়ম পরিবর্তন করার কাজটি আগে করেনি।
মোদির সরকারের আগমনের আগেই, ভারতীয় নারী একা বা দেশের বাইরে চলে যেতে মুক্ত। তিনি বলেন, যদি হজের নিয়ম অনুসরণ না করা হয় তবে তিনি সৌদি আরব ভ্রমণের জন্য ভিসা পাবেন না।
এদিকে শ্রী মোদি গতকাল মন কী বাতে বলেছেন যে একজন মুসলিম মহিলা হজ তীর্থযাত্রা ত্যাগ করতে চায়, তবে তিনি ‘মাহ্রাম’ বা তার পুরুষ অভিভাবক ব্যতীত যেতে পারেন না। কয়েক দশক ধরে মুসলমান নারীদের সাথে অবিচার করা হচ্ছে, কিন্তু কোন আলোচনা হয়নি।
এমনকি অনেক ইসলামিক দেশেও এই নিয়ম নয়, তবে ভারতে মুসলিম নারীদের এই অধিকার নেই। তাঁর সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে এবং এই ঐতিহ্যকে শেষ করে 70 বছর ধরে চলে। এখন মুসলিম নারীরা ‘মাহরামের’ ছাড়া হজ করতে পারে এবং প্রায় 1300 নারী ‘মাহরাম’ ছাড়াই হজ্জের জন্য আবেদন করেছেন।
সাধারণত হজ যাত্রীদের জন্য লটারি সিস্টেমের কিন্তু সে সংখ্যালঘু বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে একক নারী প্রক্রিয়ার বাইরে রাখা বললেন থাকেন এবং তাদেরকে একটি বিশেষ শ্রেণীতে স্থাপন প্রাধান্য দিতে জিজ্ঞাসা।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.